প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া ফার্মেসী

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


গ্রাহক, যে কারোই থাইরয়েড বেড়ে বা কমে জেতে পারে।

থাইরয়েড প্রজাপতির মত দেখতে একটি গ্রন্থি, যেটা গলায় থাকে, গলার কলার বোন বা বিউটি বোন নামক হাড্ডির উপরে। এটি একটি এন্ড্রোক্রাইন গ্রন্থি। এটি হরমোন তৈরি করে। আর থাইরয়েড হরমোন আমাদের শরীরে জৈব বিপাক ক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। তাই এর গুরূত্ব অনেক।

কিছু কিছু উপসর্গ আছে, যা দেখে আপনি সন্দেহ করতে পারবেন যে, আপনি হয়ত এই রোগে ভুগছেন।

১) কাজ করতে এনার্জি না পাওয়া বা ক্লান্তবোধ করা।
২) খাওয়ার রুচি কমে যাওয়া।
৩) পর্যাপ্ত খাবার না খাওয়ার পরেও শরীরের ওজন ব্যাখ্যাতীতভাবে বেড়ে যাওয়া।
৪) ঠান্ডা একদমই সহ্য করতে না পারা।
৫) চুল ও ত্বক শুকনো ও মোটা হয়ে যাওয়া।
৬) মেয়েদের মাসিকের সময় প্রচুর রক্ত যাওয়া ও অনিয়মিত মাসিক হওয়া।
৭) মুখ ফুলে যাওয়া।
৮) হতাশাগ্রস্থ হওয়া।
৯) মাংসপেশীতে ব্যথা।
১০) পায়খানা কষা হয়ে যাওয়া।
১১) বন্ধ্যাত্বতায় ভোগা।
১২) মানসিক অবসাদে ভোগা।
১৩) যৌন চাহিদা কমে যাওয়া।
১৪) হার্ট এর গতি কমে যাওয়া।
১৫) থাইরয়েড গ্রন্থি ফুলে যাওয়া বা গোটা গোটা উঠা। যাকে মেডিকেল ভাষায় goiter বলে।
এই সমস্ত লক্ষণ কয়েকটা একসাথে দেখা দিলে ডাক্তার এর শরনাপন্ন হবেন। ডাক্তার আপনাকে কিছু পরীক্ষা করতে দিবে। পরীক্ষার ফল দেখে ডাক্তার নিশ্চিন্ত হবেন আসলেই আপনি হাইপোথাইরয়েডিজম এ ভুগছেন কিনা? এরপর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিবেন ডাক্তার।



প্রশ্ন করুন আপনিও