প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া শপ

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


সম্মানিত গ্রাহক,

আপনার প্রশ্নের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনি একটি ভালবাসার সম্পর্কে আছেন যা একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক। কিন্তু এই ভালবাসার সম্পর্কে অতিরিক্ত ইনভলভমেন্টের কারণে আপনার পড়াশুনায় ক্ষতি হচ্ছে বুঝতে পারছি। গ্রাহক, ভালবাসার ক্ষেত্রে দেখা হওয়া, কথা হওয়ার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ একে অপরের প্রতি ট্রাস্ট এবং অনুভুতি। কোন রিলেশনশিপে জড়ালে আমরা অনেক সময়ই দূরবর্তী বিষয়টিকে প্রাধান্য না দিয়ে সাময়িক ভাল লাগার জন্য নিজের ভবিষ্যতকে ঝুঁকির মুখে ফেলে দেই। রিলেশনশিপটাকে পরিনতি দেয়ার জন্য আমাদেরকে যোগ্য হয়ে গড়ে ওঠা যে গুরুত্বপূর্ণ সেটা ভুলে যাই। আপনি যথেষ্ট সচেতন হওয়ায় আপনি বিষয়টি অনুধাবন করতে পেরেছেন যা খুবই প্রশংসনীয়। 

গ্রাহক, আপনি আপনার ভালবাসার মানুষের সাথে কথা বলতে পারেন যে কিভাবে আপনারা অন্যান্য কাজগুলো ঠিকঠাক ভাবে করেও ভালভাবে আপনাদের সম্পর্কটা চালিয়ে নিতে পারেন। এইচ এস সি একটি গুরুত্বপূর্ণ সময় আমাদের ছাত্র জীবনের। এই সময়ে ভাল ফলাফল করা গুরুত্বপূর্ণ। ভালবাসা এবং পড়াশুনা বিষয়টিকে আলাদা করার চেষ্টা করুন। পড়াশুনার সময় মনোযোগটা শুধু পড়াশুনায় রাখার চেষ্টা করুন। 

গ্রাহকপড়াশুনা আপনার জন্য কেন গুরুত্বপূর্ণ তা আপনি জানেন কিযে যে কারণে পড়াশুনা আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ তা একটি কাগজে লিখে ফেলুন। পড়াশুনা আপনাকে কিভাবে আপনার কাংখিত লক্ষ্যে পৌঁছে দিবে সেটাও লিখে ফেলুন। কাগজটি আপনার সামনে বা টেবিলে রাখুন যাতে আপনি তা সব সময় দেখতে পারেন।শুরুতে আপনি এক সপ্তাহ টানা প্রতিদিন কয়েক ঘন্টা করে পড়ুন। একেবারে না পড়ার চাইতে এটা অন্তত কিছু পড়া হলো। সহজে মেনে চলতে পারবেন এরকম একটা রুটিন করে রাখুন। দিনে / ঘণ্টা করে প্রতিদিন পড়লেই কিন্তু অনেক পড়া হয়ভালো ফলাফল লাভ করা যায়। প্রথম সপ্তাহের পর দ্বিতীয় সপ্তাহে সময়টা ঘণ্টা বাড়িয়ে ফেলুন। প্রতি ৩০ মিনিট পরপর বিরতি নিতে পারেন। নিজেকে একটা টার্গেট দিবেনযেমন এই সপ্তাহে বাংলা দুটা কবিতা পড়তে হবে। টার্গেট পূরণ করলে নিজেকে উপহার দিন। সেটা বন্ধুদের সাথে কিছুক্ষণ আড্ডা দেওয়ানতুন গল্পের বই পড়াপছন্দের কিছু খাওয়া বা আপনার পছন্দের যে কোন কিছুই হতে পারে। সপ্তাহে দিন পুরো সপ্তাহের পড়াগুলো রিভাইস করুনমাসে দুবার পুরো মাসের পড়াটা রিভাইস করুন। পড়ার পাশাপাশি বারবার লিখে লিখে জিনিসগুলো প্র্যাকটিস করুন। এতে পড়া বেশ মনে থাকে। পড়তে বসার সময় ফোনল্যাপটপ সব দূরে রাখুন। বন্ধুরা কেউ কল/ টেক্সট করলে সেটার উত্তর পরেও দিতে পারবেন। পড়ার সময়টা শুধু পড়ার জন্যই রাখুন। দেখবেন কিছুদিনের মধ্যেই পড়ার অভ্যাস গড়ে উঠবেপড়তে তেমন খারাপ লাগবে না।অনেক সময় পড়তে বসলে আমাদের মাথায় বিভিন্ন চিন্তা ঘুরপাক খেতে থাকে। চিন্তাগুলো করার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময় সেট করুন এবং সময়ের জন্য চিন্তাগুলো করার জন্য রেখে দিয়ে পড়ায় মনোযোগী হউন। প্রথম প্রথম দেখবেন চিন্তাগুলো তারপরও আস্তে থাকবে। নিয়মিত প্রাকটিস করলে চিন্তাগুলো আসা কমে যাবে।

আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে মায়াকে জানাবেন। আপনার পাশে সব সময় আছে মায়া।

 

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রিতে শারীরিক, মানসিক এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন Maya অ্যাপ থেকে। অ্যাপের ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bit.ly/38Mq0qn


প্রশ্ন করুন আপনিও