গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। একজন পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তি দিনে চার থেকে আটবার মূত্রত্যাগ করে থাকেন। পরিমাণ যা-ই হোক না কেন, দিনে আটবারের বেশি প্রস্রাব করলে তাকে ঘন ঘন প্রস্রাব হিসেবে গণ্য করা হয়। বিভিন্ন বয়সে প্রস্রাবের স্বাভাবিক পরিমাণ বিভিন্ন। তবে স্বাভাবিক অবস্থায় কোনো পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তির প্রস্রাবের পরিমাণ ২৪ ঘণ্টায় তিন লিটার বা এর অধিক হলে তা অস্বাভাবিক এবং একে পলিইউরিয়া বলা হয়। ঘন ঘন প্রস্রাব বা অধিক পরিমাণ প্রস্রাব—উপসর্গ দুটো আলাদা। অনেক ক্ষেত্রেই এ দুটো একসঙ্গে দেখা যায়। কেননা প্রস্রাবের পরিমাণ বেড়ে গেলে প্রস্রাব ঘন ঘন হয়ে থাকে। অনেক সময় ঘন ঘন প্রস্রাবের মূল কারণ হলো শুধু অধিক বা অস্বাভাবিক পরিমাণে পানি বা পানীয় গ্রহণ।কিছু ক্ষেত্রে স্বাভাবিক কারণেই বেশি প্রস্রাব হতে পারে। যেমন:১)অতিমাত্রায় পানীয় বা অ্যালকোহল সেবন,২)ক্যাফেইনযুক্ত পানীয় গ্রহণ,৩)শীতকালে যখন ঘামের পরিমাণ কমে যায়,৪)গর্ভাবস্থায়,৫)প্রস্রাব বৃদ্ধিকারক ওষুধ সেবন, ৬)১০ হাজার ফুট ওপরে ভ্রমণের সময়,৭)অধিকমাত্রায় ভিটামিন সি ও বি২ গ্রহণ ইত্যাদি।ঘন ঘন বা অধিক প্রস্রাবের কারণসমূহ :-ডায়াবেটিসমূত্রনালি বা মূত্রথলির সংক্রমণ। -গর্ভকালীন প্রথম ও শেষ দিকে। -বয়স্ক পুরুষদের প্রস্টেট গ্রন্থির সমস্যায়। -স্ট্রোক ও অন্যান্য স্নায়ুরোগ, মূত্রথলির স্নায়ুবিকলতা,মূত্রথলির ক্যানসার ইত্যাদি। -মস্তিষ্কের টিউমার,বিকিরণ,সার্জারি,আঘাত,কিডনি রোগ ইত্যাদি কারণে মূত্র নিয়ন্ত্রক এডিএউচ হরমোনের অভাব বা অকার্যকারিতা দেখা দেয়। --আপনার ক্ষেত্রে যদি স্বাভাবিক কারন ব্যতিত ঘন ঘন প্রস্রাব হচ্ছে মনে হয় ,তাহলে একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। উনি আপনাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সঠিক কারনটি বের করে উপযুক্ত চিকিৎসা দেবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়াকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও