গ্রাহক আপনি আপনার স্ত্রীর ব্যাপারে এত যত্নবান সেটা জেনে ভালো লাগলো ।   .প্রেগন্যান্সিতে   জরায়ু বড় হতে থাকে যার কারণে কোমরের দুইপাশের লিগামেন্ট এ টান লাগে যার জন্য কোমর ব্যথা হয়,যা স্বাভাবিক। কোমর ব্যথা কমানোর জন্য আপনার স্ত্রী  কিছু পন্থা অবলম্ভন করতে পারেন যেমন  কোমর ব্যথা কমাতে --সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতি হলো ব্যায়াম। নিয়মিত ব্যায়াম কোমরের পেশি ও সন্ধির কার্যক্ষমতা বাড়াবে, ব্যথা কমাবে। গর্ভাবস্থায় হাঁটাহাঁটি  হলো সবচেয়ে ভালো ব্যায়াম।- হাইহিল ও একেবারে ফ্ল্যাট জুতো—দুটোই শরীরের ওজনের ভারসাম্য নষ্ট করে। হালকা উঁচু নরম সোলের জুতো ব্যবহার করতে হবে।- চিত হয়ে না শুয়ে বাঁ কাত হয়ে শুতে চেষ্টা করুন। দুই পায়ের মাঝখানে এবং পিঠের নিচে বালিশ দিয়ে ঘুমালে মেরুদণ্ডের চাপ কমবে। -বসার সময় কোমরের পিছনে বালিশ ব্যবহার করতে পারেন। -অনেক্ষন এক জায়গায় বসে বা দাঁড়িয়ে থাকবেন না. -প্রচুর পরিমানে পানি পান করুন -ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার যেমন দুধ,ডিম্,মাছ মাংস ইত্যাদি বেশি করে খান.-পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন. - গরম ও ঠান্ডা পানির সেঁক নিতে পারেন। তবে পানির তাপমাত্রা যেন সহনীয় থাকে।- নিচু হয়ে ঝুঁকে কোনো কাজ করা যাবে না। সোজা দাঁড়িয়ে বা বসে কাজ করুন। ভারী কিছু ওঠাবেন না। -যোগব্যায়াম, মেডিটেশন ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। পিঠে ও কোমরে হালকা ম্যাসাজও করা যেতে পারে। এছাড়া প্রতি মাসে রেগুলার চেক আপের জন্য একজন গাইনি বিশেষজ্ঞ ডক্টরের তত্ত্বাবধানে থাকুন।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও