সম্মানিত গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনি যে নিজের বিষয়ে সচেতন হয়েছেন এবং সমস্যাগুলো সমাধানের কথা ভাবছেন তা খুবই ইতিবাচক। আপনি তিনটি সমস্যার কথা বলেছেনঃ অল্পতেই সিরিয়াস হয়ে যাওয়া এবং ধৈর্য ধরে রাখতে না পারা, অন্যের কথা মেনে নিতে না পারা। আপনার এই সমস্যা তিনটি কতদিন ধরে ঘটছে? এই সমস্যাগুলো কি সব ক্ষেত্রেই হয় নাকি নির্দিষ্ট কোন ক্ষেত্রে এমনটি হয়ে থাকে? গ্রাহক, মানসিক বিষয়গুলো সমাধানের জন্য একজন ব্যাক্তির জীবনের পুরোটা বিষয়ই জানার প্রয়োজন পরে। ১৯ বছর বয়সী আপনি আজ যে সমস্যাগুলো অনুভব করছেন তার শুরুটা এবং এখন এই সমস্যাগুলো কি কি কারণে চলমান আছে সে বিষয়গুলো জেনে আমরা সমাধানের জন্য চেষ্টা করতে পারি। আপনি কি বিষয়গুলো সম্পর্কে আর একটু বিস্তারিত বলতে পারবেন?যে কোন সমস্যা থেকে বের হয়ে আসার জন্য সমস্যা সম্পর্কে সচেতন হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। যে যে ক্ষেত্রে আপনি সমস্যা গুলো হচ্ছে বুঝতে পারছেন তখন নিজেকে সচেতন করা এবং সে অনুযায়ী আচরণ করলে আপনি উপকৃত হবেন বলে মনে করছি। উদাহরণস্বরূপঃ আপনি যখন দেখছেন যে কেও এমন কিছু বলছে যেটি মেনে নিতে আপনার সমস্যা হচ্ছে তখন আপনি যেটা করতে পারেন তা হল নিজেকে সচেতন করা যে অন্যের এই আচরণে আপনি রি এক্ট করতে পারেন তখন নিজেকে সেই স্থান থেকে কিছু সময়ের জন্য বিরতি দেয়া কিংবা আপনার অভ্যন্তরীন বিষয়টা তাদের সাথে এমন ভাবে শেয়ার করা যা তাদের সাথে আপনার সম্পর্ককে নষ্ট না করে। আশা করি আপনি বুঝতে পারছেন আপনাকে সুনির্দিষ্টভাবে সাহায্য করার জন্য আপনার সমস্যা বিষয়ক বিস্তারিত জানা প্রয়োজন। বিস্তারিত জানার অপেক্ষায়, মায়া। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও