ইমারজেন্সি পিলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় আপনার স্ত্রীর  মাসিকে এমন অনিয়মিত  হতে পারে।এটি একটি হরমনাল জন্মনিয়ন্ত্রক পদ্ধতি। এই পিল প্রত্যেকটি অনিরাপদ সহবাসের পর বাচ্চা নিতে না চাইলে যত দ্রুত সম্ভব গ্রহন করা উচিত।
এই পিল সাধারনত সফল ভাবে গর্ভ নিরোধ করে , তবে মাসিকে অন্য ওষুধের মত এই পিলের কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। তবে এই সব গুলো উপসর্গ সবার ক্ষেত্রে দেখা দেয়না ইমারজেন্সী পিলের প্রভাবে দেহে হরমোনের আধিক্য ঘটে।যার কারনে,মাসিক আগে বা পরে হতে পারে।এছাড়া অন্যান্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া,যেমন- সাধারণত মাথা ব্যথা, মাথা ঘোরা, বমি, বমি বমি ভাব, পেটে মোচড় দেওয়া। মাসিকে অনিয়ম, স্তন অস্বস্তি, মাসিকে অধিক রক্তক্ষরন, দুর্বল লাগা, কারো কারো ক্ষেত্রে মাসিক দুই সপ্তাহ ও পিছাতে পারে, কারো আগেও হয়ে যায়। কিন্তু ঠিক কতদিন আগে পরে হবে, তা সঠিক বলা যাবেনা।তবে এই সব গুলো উপসর্গ সবার ক্ষেত্রে দেখা দেয়না।ইমার্জেন্সি পিল কোন রেগুলার জন্মনিয়ন্ত্রন পিল না।তাই, এই পিল ঘন ঘন খাওয়া উচিত নয়। এই পিলের প্রভাবে ওনার মাসিক চক্র অনিয়মিত হয়ে পরতে পারে। যার ফলে ভবিষ্যতে আপনার গর্ভধারনের ক্ষেত্রে সমস্যা সৃস্টি হতে পারে। তাই,ভবিষ্যতে এই মূহূর্তে প্রেগনেন্ট হতে না চাইলে কন্ডম ব্যবহার করুন,অথবা অন্য যে কোন জন্মনিয়ন্ত্রন পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রিতে শারীরিক, মানসিক এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন Maya অ্যাপ থেকে। অ্যাপের ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bit.ly/38Mq0qn


প্রশ্ন করুন আপনিও