ব্রেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ - <br>1. স্তনের ভেতর কোন কিছু জমাট বেঁধে আছে বলে মনে হচ্ছে, কোনো মাংসপিণ্ডের মতো যা আগে ছিল না। এটা ছোট কিংবা বড় হতে পারে, অনেক সময় বাইরে থেকে দেখা যায় না কিন্তু ভেতরে অনুভূত হয়। বিশেষ করে একটি স্তনে এমন হলে।2. স্তনের চামড়ায় কোনো ধরনের পরিবর্তন দেখা দিলে, যেমন, কুঁচকে যাওয়া, গর্ত হয়ে যাওয়া, কালশিটে পড়া/ ঘা হওয়া, স্তনের রঙ বদলে যাওয়া, লালচে র‍্যাশ হওয়া, স্তনের চামড়া ওঠা ইত্যাদি।<br> 3.স্তনবৃন্তে পরিবর্তন আসা, যেমন, বৃন্ত ভেতরে ঢুকে যাওয়া, শক্ত হয়ে যাওয়া, ঘাঁ হওয়া কিংবা অস্বাভাবিক লালচে রঙ দেখা দেওয়া।<br>4. স্তনবৃন্ত থেকে কোনো ধরনের তরল নিঃসৃত হওয়া <br>5. স্তনে ক্রমাগত ব্যাথা, টনটনে ব্যাথা <br>6. অনেক সময় বগলেও চাকা/ব্যথা অনুভূত হতে পারে। <br>কারণ - স্তন ক্যান্সার হওয়ার সঠিক কারণ নির্ণয় করা এখনো সম্পূর্ণভাবে সম্ভব হয়নি। তবে কিছু বিষয়ের কারণে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায় - <br>1. কিছু নারীর ক্ষেত্রে দেখা গেছে, তাদের এ রোগ হওয়ার ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় বেশি।স্তন ক্যান্সার হওয়ার একটি কারণ হলো উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া ক্রুটিযুক্ত ‘জিন, যেসব অস্বাভাবিক জিন স্তন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ায়। <br>2. একই পরিবারের দুই বা তার বেশি নিকটাত্মীয়ের স্তনের ক্যান্সার থাকলে, একই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে অন্যান্য ক্যান্সার থাকলে, এমন কেস থাকলে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে।<br>3. সন্তানহীনতা বা বেশি বয়সে সন্তান হওয়া, <br.4. খুব অল্প বয়সেই মাসিক হওয়া কিংবা বেশি বয়সে মাসিক বন্ধ হওয়া, <br>5. দীর্ঘ দিন ধরে গর্ভনিরোধক বড়ি ব্যবহার করা ,<br>6. হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি, <br>7. শিশুকে বুকের দুধ পান না করানো এবং <br>8. অ্যালকোহল ব্যবহারে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে।<br>9. স্থূলতা, অধিক চর্বিজাতীয় খাবার ও শারীরিক কর্মহীনতাও স্তন ক্যান্সারের জন্য দায়ী। <br>চিকিৎসা -<br>প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়লে শতকরা ৯০-৯৫ ভাগ রোগী সুস্থ হওয়ার স্বপ্ন দেখতে পারেন। এ ক্যান্সারের চিকিৎসা প্রধানত কয়েকভাগে বিভক্ত-<br>* সার্জারি <br>* কেমোথেরাপি <br>* রেডিওথেরাপি<br>* হরমোন থেরাপি <br>* টার্গেটেড থেরাপি।<br>তবে চিকিৎসার পদ্ধতি ক্যান্সারের ধরন এবং কোন স্টেজের ক্যান্সার তার উপর নির্ভর করবে।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও