গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।   গ্রাহক আপনার পায়খানার সাথে রক্ত বা মিউকাস জাতীয় কিছু যাচ্ছে? আপনার বমি বা জ্বর আছে কি?         λ ডায়রিয়া যত দিন চলে, তত দিন স্যালাইন খেতে  হবে। স্যালাইন শরীরে পানিশূন্যতা রোধ করে। ডায়রিয়া হলে যা করা যাবে নাঃλ খাবার বন্ধ করা যাবে না।λ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ দেওয়া যাবে না।ডায়রিয়া প্রতিরোধেঃইউনিসেফের গবেষণা অনুযায়ী, মলত্যাগ করার পর সাবান দিয়ে হাত ধুলে ডায়রিয়ার আশঙ্কা ৪০ শতাংশ হ্রাস করে। তাই বড়দের পাশাপাশি শিশুদেরও খাওয়ার আগে ও পরে হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। নখ কেটে সব সময় ছোট রাখতে হবে। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে তারা বাইরে খেলাধুলা করে, ঘরের ছোট ছোট জিনিস হাতে নিয়ে মুখে দেয়। তাই সব সময় হাত পরিষ্কার রাখা উচিত। নিজেদেরও তা করতে হবে। শিশুদের দায়িত্বও নিতে হবে। খাবার সব সময় ঢেকে রাখা উচিত। পরিষ্কার স্থানে খাবার রাখতে হবে। টয়লেট থেকে আসার পর সাবান দিয়ে ভালোভাবে হাত ধুতে হবে। হাতের কাছে সাবান না থাকলে ছাই দিয়ে হাত ধুতে হবে। তখন বেশি পানি দিয়ে ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে নেওয়া উচিত। প্রতিটি বাসাবাড়িতে খাওয়ার স্যালাইন ও জিঙ্ক ট্যাবলেট সব সময় রাখা উচিত। চিকিৎসকের পরামর্শে জিঙ্ক ট্যাবলেট খেলে ভবিষ্যতে ডায়রিয়া হওয়ার ঝুঁকি কম থাকে।তাছাড়া ঔষধ সম্পর্কে জানতে/চিকিতসকের সাথে কথা বলতে/প্রেসক্রিপশন পেতে আমাদের মায়া প্রেসক্রিপশন প্যাকেজটি সাবস্ক্রাইব করুন।    

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও