প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।বুকে কফ বিভিন্ন কারনে জমতে পারে যেমন হঠাৎ অবহাওয়ার পরিবর্তনে ঠান্ডা লাগলে, ঠান্ডা পানি এবং শীতল খাবার গ্রহণ করলে , ধূমপান করলে ইত্যাদি। এছাড়া বিভিন্ন শ্বাসযন্ত্রের রোগের প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে।আপনি নিচের ঘরোয়া উপায় গুলো করে দেখতে পারেন-১)এক গ্লাস কুসুম গরম পানির সাথে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। এটি দিয়ে দিনে দুই তিনবার গারগেল করুন। কফ অনেকটা কমে যাবে।২)এক টেবিল চামচ আদা কুচি এক মগ পানিতে মেশান। এবার এটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৫ মিনিট জ্বাল দিয়ে নিন। বলক আসলে এতে সামান্য মধু দিয়ে দেন। দিনে তিনবার এই পানীয়টি পান করুন। আপনি চাইলে এক টুকরো আদা নিয়ে মুখে চাবাতে পারেন। আদার রস বুকের কফ পরিষ্কার করতে সাহায্য করবে। আদার চা ও এক্ষত্রে উপকারি।৩)কসুম গরম পানিতে লেবুর রস, লবন ও চিনি বা মধু মিসিয়ে সেটি পান করুণ।৪)ফুটন্ত গরম পানিতে মেন্থল দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। চুলা থেকে পানি নামিয়ে নিন। এবার মাথার উপর একটি টাওয়েল দিয়ে বড় করে দম নিয়ে গরম পানির ভাপ নিন। এভাবে অন্তত ১০ মিনিট করে দিনে ২ বার করুন। গরম পানির ভাপ নিলে বুকে কফ জমতে পারে না এবং সহজেই বের হয়ে আসে।৫)কফের সমস্যায় বেশি করে তরল খাবার খেলে উপকার পাওয়া যায়। সারাদিন প্রচুর পানি ও বিভিন্ন রকম জুস খান। তবে খুব ঠান্ডা পানি বা জুস খাওয়া উচিত না। এছাড়াও যে সব তরল খাবার খেতে পারেন সেগুলো হলো-মুরগী ও সবজির স্যুপ খান। তবে ঘন স্যুপের চাইলে পাতলা ও স্বচ্ছ স্যুপ খাওয়া ভালো।হালকা গরম পানিতে লবণ দিয়ে পান করুন।তুলসী পাতার চা পান করুন।এসবে কফ যদি না কমে তবে একজন বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার কে দেখিয়ে নিতে পারেন।"এখন মায়া প্লাস এ পাচ্ছেন  ডাক্তারের পরামর্শ সহ আপনি কয়টি প্রশ্ন করতে চান তার উপর নির্ভর করে আপনার পছন্দমত প্যাকেজ বেছে নেওয়ার সুযোগ। আপনার পছন্দের মায়া প্লাস প্যাকেজটি নিতে ভিজিট করুন লিঙ্কটিতে ঃ https://maya.com.bd/package_redirect "আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও