প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। স্তনের আকার সাধারনত শারীরিক গঠনের সাথে সম্পর্কিত । তাই ছোট , বড় যাই হোক তা স্বাভাবিক। স্তনের আকার সুগঠিত দেখাতে ভাল মানের সঠিক মাপের ব্রা ব্যবহার করা প্রয়োজন। সেই সাথে আপনার চলাফেরার ভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে যেমন সোজা হয়ে হাটা চলা করতে হবে। সঠিক মাপের ব্রা এবং সোজা হয়ে চলা ফেরা ভবিষ্যতে আপনাকে পিঠের ব্যথা থেকে মুক্তি দিবে। ইন্টারনেটে স্তনের আকার পরিবর্তনের জন্য অনেক ম্যাসেজ এর পদ্ধতি দেখানো আছে কিন্তু তা কতটা ফলপ্রসূ তা কোথাও উল্লেখ নাই। তারপরও যদি আপনি মনে করেন আপনার স্তনের আকার পরিবর্তন করা দরকার তাহলে এক্ষেত্রে একমাত্র উপায় হলো সার্জারী। এটি অত্যন্ত ব্যয় বহুল এবং এর অনেক জটিলতা আছে। সার্জারির আগে প্লাস্টিক সার্জনের পরামর্শ নিতে হবে।সবচেয়ে বড় কথা হলো নিজের সবকিছু নিয়ে খুশি থাকা। নিজেকে নিয়ে হতাশা তৈরী হলে জীবনের কোনো ক্ষেত্রেই ভালো কিছু হবে না। তাই নিজেকে নিয়ে কনফিডেন্ট থাকা প্রয়োজন।গ্রাহক, বয়স বাড়ার সাথে সাথে একটি নির্দিষ্ট কৌনিক মাত্রায় স্তন ঝুলে যাওয়া স্বাভাবিক, কিন্তু কিশোরী বয়সে স্তন ঢিলা হয়ে যাবার প্রবনতা স্বাভাবিক শাররীক পরিবর্তনের পর্যায়ে পড়েনা। কিশোরীর স্তন ঝুলে যাবার সম্ভাব্য কারনগুলোর মধ্যে আছে শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়া, সন্তান গর্ভধারন, ধুমপান অথবা বংশগত কারনে বড় আকৃতির স্তন থাকা এবং বড় স্তনে প্রয়োজনীয় সার্পোট/সঠিক আকারের ব্রা পরিধান না করা।একইসাথে উচ্চ প্রভাব ব্যয়াম যেমন দৌড়ানো, নাচ করা ইত্যাদির সময় যদি স্পোটস ব্রা কিংবা স্তনের পুর্ন অবলম্বনে সামর্থ্য ব্রা ব্যবহার না করা হয় তবে তা থেকে স্তনের ঝুলে যাওয়া সম্ভব।যেসকল খেলাধুলায় স্তন সজোরে লাফালাফি করে (যেমন ব্যাডমিন্টন, দৌড়, উচ্চ লম্প ইত্যাদি) তা নারী স্তন ঢিলে হয়ে যাওয়ায় ব্যাপক ভুমিকা রাখে।এ সমস্ত সমস্যার ক্ষেত্রে নিয়মিতআহার,নিদ্রা,ব্যায়াম,যত্ন ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতাই সমাধান এনে দিতে পারে। যাহোক স্তনের সোন্দর্য বৃদ্ধির উপায়:১) স্তন বড় বা ছোট তা বুঝে নির্দিষ্ট ব্যায়াম করুণ।২) খুব টাইট ও নয়,আবার খুব ঢিলে ও নয় এমন ব্রা পরা।৩) দিনে ২ বার প্রথমেগরম ও পরে ঠান্ডা এ ভাবে কয়েক বার পানি ঢালুন।৪) বড় ও মোটা স্তন যাদের তারা চর্বি বা স্নেহ জতীয় খাবার থেকে দুরে থাকুন।৫) স্তনের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য বেশি করে দোলনা খানএবং সাতার কাটুন।৬) প্রতিদিন স্নানের আগে বাথরুমে ৫ মিনিট ব্যায়াম করুন যাতেস্তনের পেশিতে চাপ পড়ে।৭) রাতে স্তন থেকে ব্রা খুলে ঘুমাবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও