প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। চোখে জ্বালা-পোড়া বা অস্বস্তি ভাব যে কারও যে কোনো বয়সে হতে পারে। এর ফলে চোখে চুলকানি ভাব হয়, চোখ ব্যথা ও অস্পষ্ট দেখা যায়। প্রধানত চোখের সামনের অংশের কর্নিয়াতে এ সমস্যা হয়। কেন হয়- * যারা দীর্ঘক্ষণ ও নিয়মিত মনিটরে কাজ করেন তাদের চোখ শুষ্ক হয়ে চোখ জ্বালা-পোড়া করতে পারে। কম্পিউটার, টিভি, ট্যাব ব্যবহার থেকে এ সমস্যা বেশি হয়। * যারা খুব ঠাণ্ডায় বা এয়ারকন্ডিশন রুমে দীর্ঘক্ষণ থাকে। * রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের চিকিৎসাতেও চোখ জ্বালা-পোড়া করতে পারে। * কোলাজেন ডিজিজ যেমন- এসএলই, লুপাসে চোখ শুষ্ক হয়ে এ সমস্যা হয়। * ড্রাগ রিঅ্যাকশন যেমন স্টিভেন জনসন সিলড্রোম রোগে চোখ জ্বালা-পোড়া করা খুব স্বাভাবিক। * চোখের যে কোনো সার্জারি যেমন ফ্যাকো, গ্লুকোমার অপারেশনের পর। এ ক্ষেত্রে চোখের অশ্রু গ্রন্থি বা ল্যাক্রিমাল গ্ল্যান্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে চোখ শুষ্ক হয়ে জ্বালা-পোড়া করে। * অ্যালকালি বা ক্ষার বা কোনো কেমিক্যাল চোখে পরলে। মনিটর ব্যবহারে সাবধান হোন এক্ষেত্রে চোখে পলক পড়া কমে যায় এবং চোখ স্থির করে মনিটরের দিকে তাকিয়ে থাকে, ফলে মেবোমিয়ান গ্রন্থি থেকে অশ্র“ নিঃসরণ কমে যায়। এক্ষেত্রে চোখ বার বার পানি দিয়ে ধুয়ে তেমন লাভ হয় না। তবে চোখের পাতার পরিচ্ছন্নতা বা লিড হাইজিন মেইনটেইন করা জরুরি। চিকিৎসা : যে কারণে সমস্যা হচ্ছে তা নির্ণয় করে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিতে হবে। চোখ শুষ্ক হয়ে গেলেও জ্বালা-পোড়া করলে চোখের কৃত্রিম পানি বা জেল নিয়মিত ব্যবহারে উপকার পাওয়া যায়।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও