প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার স্ত্রীর যদি এরুম এই প্রথম বার হয়ে থাকে তাহলে কারন টা খুজে বের করতে হবে।আপনার স্ত্রীর মাসিক কি নিয়মিত হয়? যদি হ্যাঁ, তাহলে যদি contraception ছাড়া যৌনমিলন করে থাকেন,তাহলে গর্ভবতী হতে পারেন এবং একটি pregnancy test করাবেন। যদি  প্রেগন্যান্ট না হন, এবং মাসিক 2 সপ্তাহের বেশী বিলম্বিত হয় অথবা যদি উনার মাসিকের সময় বেশি রক্ত পাত হয় /পেটে খুব বেশি ব্যথা হয় তাহলে উনার একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ নিন। প্রায়ই মানসিক চাপ, জীবনশৈলী পরিবর্তনের , ওজনবৃদ্ধি , অত্যধিক ব্যায়াম এর কারন এ বিলম্ব হতে পারে। পিরিয়ড না হওয়ার আরও অনেক কারণ হতে পারে। যেমন যদি আপনার ডিম্বাশয়ে কোন সিস্ট থাকে (পলিসিস্টিক ওভারির) , বা জরায়ুতে কোন রোগ, অথবা শরীরে কোন কারনে হরমোনের তারতম্য। থাইরয়েড হরমন কিংবা প্রল্যক্টিন হরমনের পরিমানে পরিবর্তনের জন্য ও হতে পারে মাসিক। তাই এই হরমনের পরিমান জেনে নেওয়াটা ও জরুরি। কারণ বের করতে হলে আপনার একজন গাইনি ডাক্তারের কাছে গিয়ে শারীরিক পরীক্ষা করাতে হবে। কিন্তু অনেক সময় কোন কারণ ছাড়াই অনেকদিন পিরিয়ড না হতে পারে স্বাভাবিকভাবেই। সেক্ষেত্রে কিছু করার প্রয়োজন নাই। সেক্ষেত্রে ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখাটা জরুরি । সুধু অপেক্ষা করুন।তবে অবহেলা করেন না। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও