প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক,নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খেলে এমনিতেই পুরুষের বীর্য ঘন হয়ে থাকে। সাধারণত আর কোনো কিছুরই দরকার পড়ে না। অনেকে আবার সরাসরি ঔষধ খাওয়া শুরু করে দেন। তারও কোনো দরকার আছে বলে ডাক্তাররা মনে করেন না। কারণ পুরুষের বীর্য উত্পন্ন হয় সরাসরি তাদের খাবার থেকে। এরপর ও কিছু জিনিস করে উপকৃত হতে পারেন :- ১। অতিরিক্ত ভারী প্যান্ট পরবেন না। আপনার টেস্টিকল ঠান্ডা রাখুন। লুঙ্গী, ট্রাউজার বা পাতলা জিন্স পরুন। ২। স্ট্রেস বা দুশ্চিন্তা থেকে দূরে থাকুন। ৩। ধুমপান, মদ্যপান পরিহার করুন।ধূমপায়ী দের শুক্রাণু সংখ্যা অধূমপায়ীদের চেয়ে ২২% কম হয় । ৪। ঘন ঘন বীর্যপাত (যৌন মিলন/হস্তমৈথুন) যাতে নাহয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।সেক্স বেশি করার চেষ্টা করুন হস্তমৈথুনের চেয়ে ।পারলে হস্তমৈথুন একেবারে বাদ দিন । ৫। অস্বীকৃত মেডিসিন থেকে সাবধান থাকুন। ৬। প্রতিদিন ব্যায়াম করুন।পান করুন প্রচুর পানি ।২ লিটারের বেশি দিনে । ৭। মাছ, মাংস, ডিম, ফল ও সবজি প্রচুর পরিমানে খাবেন। টুনা মাছ, মুরগি, লাল মাংস, কচি ছাগল বা ভেড়ার মাংস খান । এতে প্রচুর এমিনো এসিড থাকে যা testosterone(পু ¬রুষ হরমোন) লেভেল বাড়িয়ে দেয়। ৮। চীনাবাদাম,মধু,  আখরোট, সূর্যমুখী এবং কুমড়া বীজ শুক্রানুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে বলে মনে করা হয়. বাদাম খানপ্রতিদিন । বাদামে জিঙ্ক এবং এমিনো এসিড প্রচুর পরিমানে থাকে । গমের আটা এবং বার্লি জিঙ্ক সরবরাহ করে । জিঙ্ক বীর্য উৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে । ৯। সোয়া-ভিত্তিক খাবার এবং উচ্চ শর্করা যুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। ১০| টমেটো, তরমুজ, পেয়ারা, লাল মরিচ এবং বাতাবি লেবু(জাম্বুরা) প্রচুর পরিমানে খান । এতে লাইকোপিননামের এনজাইম থাকে যা বীর্যের পরিমান এবং ঘনত্ব বৃদ্ধি করে। ১১। শিমুল মূল চূর্ণ এবং “শিলাজুত” প্রতিদিন ১ চামচ পরিমান সকালে পানিতে মিশিয়ে সপ্তাহ বা ১০ দিন খেতে পারেন। এতেই কাজ হয়ে যাবে। “শিলাজুত” আগের দিন পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয়। এগুলো প্রাকৃতিক। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও