প্রিয় গ্রাহক,  প্রশ্নটির জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। কন্ট্রাসেপটিভ নানা ধরনের হয়ে থাকে।যেমন স্বল্পমেয়াদী জন্মবিরতিকরণ কন্ট্রাসেপটিভ পিল, ইমার্জেন্সি কন্ট্রাসেপটিভ পিল ইত্যাদি। ইমারজেন্সি পিল হঠাৎ অনাকাঙ্ক্ষিত সহবাসের ফলে গর্ভধারণ রোধ করতে খাওয়া হয়। তবে এর রয়েছে অনেক পার্শপ্রতিক্রিয়া।যেমন মাসিকের রাস্তায় অনিয়মিত রক্তপাত হয়, মাসিক অনিয়মিত হওয়া, রক্ত গুলো কালচে ময়লা বর্ণের হওয়া, তলপেট ব্যথা, বমি বমি ভাব, মাথাব্যথা ইত্যাদি কমন।এই মাসিক নিয়মিত হতে দুই থেকে তিন মাস সময় লেগে যেতে পারে। ইমারজেন্সি পিল কখনো মাসে একটির বেশি খাওয়া উচিত নয়। আপনি যদি পিল দিয়ে জন্ম নিয়ন্ত্রণ করতে চান তাহলে স্বল্পমেয়াদী জন্মবিরতিকরণ পিল সবচেয়ে ভালো। এতে করে মাসিক নিয়মিত হবে।আপনি যেটাকে নরমাল কনট্রাসেপটিভ পিল হয়েছেন সেটাই আসলে মেডিকেলের ভাষায় স্বল্পমেয়াদী জন্মবিরতিকরণ পিল। জি আপনার যদি মাসিক নিয়মিত হয় তাহলেে খেতে পারেন। পিল খাওয়ার নিয়ম:বাংলাদেশে প্রায় সকল স্বল্প্প মেয়াদী জন্ম বিরতিকরণ পিল বা মিশ্র খাবার বড়ি প্যাকেটে ২১টি সাদা গর্ভনিরোধক বড়ি (যার প্রধান উপাদান হরমোন) এবং ৭টি খয়েরি বড়ি (আয়রন বড়ি) থাকে। কোন কোন প্যাকেটে বা পাতায় শুধু মাত্র ২১টি জন্মনিরোধক বড়ি থাকে।প্রথমবার খাওয়ার বড়ি শুরু করার সময় মাসিকের প্রথম দিন। অর্থ্যাৎ মাসিকের প্রথম দিন হতে সাদা বড়ি খাওয়া শুরু করতে হবে। (তবে মাসিক শুরু প্রথম দিন হতে ৫ম দিন পর্যন্ত যে কোন দিন থেকেও শুরু করা যাবে)।সব সময় প্রথম পিল/বড়ি দিয়ে শুরু করতে হবে। বড়ির পাতার দিক নির্দেশনা (তীর চিহ্ন বা আঙ্গুল) অনুসরণ করে প্রথম বড়ি হতে ২১ দিনে ২১টি সাদা বড়ি খেতে হবে।সাদা বড়ি শেষ হয়ে যাবার পর একইভাবে একটি করে ৭দিনে ৭টি খয়েরি বড়ি খেতে হবে। খয়েরী বড়ি খাওয়াকালীন সাধারণ মাসিক শুরু হয়। মাসিক আরম্ভ হলেও খয়েরী বড়ি খাওয়া বন্ধ করা যাবে না।মাসিক হোক বা না হোক ৭টি খয়েরী বড়ি শেষ হওয়ার পরদিন থেকেই উপরের নিয়ম অনুযায়ী নতুন একটি পাতা থেকে আবার সাদা বড়ি খাওয়া শুরু করতে হবে।খাবার বড়ি পানি দিয়ে গিলে ফেলতে হয়। প্রতিদিন একই সময়ে বড়ি খাওয়ার অভ্যাস করা ভাল। বড়ি খাওয়ার সব চেয়ে ভাল সময় হচ্ছে রাতের খাবারের পরে বা শোবার আগে।যে সব প্যাকেটে ২১টি বড়ি থাকে সেক্ষেত্রে ২১টি বড়ি শেষ হয়ে গেলে মাসিকের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। মাসিক শুরু হলে মাসিকের ১ম দিন থেকে আবার নতুন প্যাকেটের বড়ি খাওয়া শুরু করতে হবে। যদি মাসিক না হয় এবং গ্রহীতা নিশ্চিত থাকেন যে কোন বড়ি খেতে ভুল হয়নি তবে, শেষ বড়ি খাবার ৭দিন পরে আবার বড়ি খেতে শুরু করবেন।খাবার বড়ি প্রথম শুরু করার নিয়ম:মাসিকের প্রথম দিন থেকে: ডিম্বস্ফুটন সঠিকভাবে প্রতিরোধ করার জন্য মাসিকের প্রথম দিন থেকেই খাবার বড়ি গ্রহণ শুরু করা উচিত। যদি মাসিক শুরু হতে কোন কারণে দেরী হয় অথবা অন্যান্য অস্বাভাবিক উপসর্গ থাকে তবে খাবার বড়ি গ্রহণ শুরু করার আগে মহিলা গর্ভবতী কিনা সে সম্বন্ধে নিশ্চিত হবে।যে কোন দিন থেকে: মহিলা যদি নিশ্চিত হন যে, তিনি গর্ভবতী নন তবে প্রয়োজনে যে কোন দিন থেকে মিশ্র বড়ি খাওয়া শুরু করতে পারেন। তবে পরবর্তী ৭ দিন তাকে কনডম ব্যবহার করতে হবে। এভাবে বড়ি খেতে শুরু করলে পরবর্তী মাসিকের সময় পিছিয়ে যাবে (যত দিন না বড়ি শেষ হয়)।যদি বড়ি খাওয়া বাদ পড়ে তাহলে কি করণীয়যদি ১ দিন বড়ি খেতে ভুলে যান তাহলে যখনই মনে পড়বে তখনই একটি বড়ি খাবেন এবং ঐ দিনের বড়িটি যথাসময়ে খাবেন।যদি পর পর ২ দিন বড়ি খেতে ভুলে যান তাহরে মনে পড়ার সাথে সাথে ২টি বড়ি খাবেন এবং তার পরদিন নির্দিষ্ট সময়ে ২টি খাবেন। পাতার বাকি বড়ি নির্দিষ্ট সময়ে প্রতি দিন একটি করে খাবেন এবং পরবর্তী মাসিক না হওয়া পর্যন্ত কনডম ব্যবহার করবেন বা স্বামীর সাথে সহবাসে বিরত থাকবেন।যদি পর পর ৩দিন বড়ি খেতে ভুলে যান তবে ঐ পাতা থেকে বড়ি আর খাবেন না এবং পরবর্তী মাসিকের আগ পর্যন্ত কনডম ব্যবহার করবেন বা সহবাস থেকে বিরত থাকবেন।আশা করি কিছুটা হলেও আপনার উপকারে আসতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে জানাবেন।রয়েছে সাথে সব সময়মায়াধন্যবাদগ্রাহক, ডাক্তারের সাথে ফোনে কথা বলে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও পরামর্শ পেতে আমাদের প্রেসক্রিপশন প্যাকেজ থেকে প্রশ্ন করতে পারেন, এক্ষেত্রে আপনি আপনার চাহিদা অনুযায়ী যে কোন একটি প্রেসক্রিপশন প্যাকেজ কিনতে নিচের দেয়া লিংকটি ব্যবহার করুন:  https://maya.com.bd/package_redirect

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও