প্রিয় গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি সিদ্ধান্তহীনতা ও মানসিক দুশ্চিন্তা জন্য কি করবেন জানতে চেয়েছেন। আপনার সচেতনতার জন্য সাধুবাদ গ্রাহক।কোনো কিছুর ব্যাপারে সহজে সিদ্ধান্ত না নিতে পারার মূল কারণ এর অন্তর্নিহিত ‘উদ্বেগ’। এই উদ্বেগের কারণ হতে পারে—সম্ভাব্য ফলাফল নিয়ে অনিশ্চয়তা বোধ,অতিরিক্ত খুঁতখুঁতে মনোভাব বা সবকিছু নিখুঁত করার প্রবণতা,নিজের প্রতি অনাস্থা বা আত্মবিশ্বাসহীনতা,সবকিছু নেতিবাচকভাবে দেখা,হীনম্মন্যতা, কোনো অবস্থাতেই ব্যর্থতা মেনে না নেওয়ার মনোভাব বা ব্যর্থতার ভয়।গ্রাহক আপনি প্রথমে ছোটখাটো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া শুরু করেন। নিজের প্রতিদিনকার কাজগুলোতে (কী করবেন, কখন করবেন) অন্যের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজে করার চেষ্টা করুন।বন্ধুদের সঙ্গে মেলামেশায় কিছু বিষয়ে দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিন। যেমন কোন রেস্তোরাঁয় যাবেন, কী খাবার খাবেন, কখন যাবেন ইত্যাদি।যত ছোট বিষয়ই হোক না কেন, সিদ্ধান্ত সফল হলে সেটায় আলাদা করে মনোযোগ দিন।সিদ্ধান্ত গ্রহণে যা বিবেচনা করবেন সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চাইছেন, সে ব্যাপারে যথেষ্ট তথ্য সংগ্রহ করুন। জীবনের কোন বিষয়কে আপনি অগ্রাধিকার দেবেন, সে ব্যাপারে পরিষ্কার থাকুন।শুধু নির্দিষ্ট একটি সিদ্ধান্তের কথা না ভেবে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্তের কথা মাথায় রাখুন। এর মধ্যে সবকিছুর বিবেচনায় যা সবচেয়ে ভালো মনে হবে, সেটি গ্রহণ করুন। দু-তিনটি সুযোগের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হলো, আপনার মন যেদিকে টানে সেটি বিবেচনা করুন।প্রতিদিনকার ছোটখাটো বিষয়ে সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত বিশ্লেষণ করবেন না। এসব বিষয়ে ছোটখাটো ভুল আপনার জীবনধারার গতিপথে খুব বেশি পরিবর্তন আনবে না। বরং এসব নিয়ে অতিরিক্ত বিশ্লেষণ আপনার অযথা সময়ক্ষেপণ করবে। গ্রাহক আপনার প্রশ্ন পড়ে বুঝতে পারছি আপনি কিছু নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন।গ্রাহক আপনার কি নিয়ে দুশ্চিন্তা হচ্ছে তা কি আমাদের বলা যায়?দুশ্চিন্তার বিষয়টি জানলে আমরা আপনাকে আরো ভালোভাবে সাহায্য করতে পারব। আমাদের বেশিরভাগ দুশ্চিন্তাগুলোই আসে অতীতের নেতিবাচক ঘটনাগুলো মনে করে যা আমরা আর পরিবর্তন করতে পারব না আর ভবিষ্যতে কি হবে তা ভেবে যা আমাদের কাছে অজানা।তাই আমরা যদি বর্তমানে থাকার চেষ্টা করি তা আমাদের জন্য সবচেয়ে ভালো।আর বর্তমানে থাকা হল মাইন্ডফুল থাকা।আপনি দুশ্চিন্তা কাটাতে মাইন্ডফুলনেস প্রেক্টিস করতে পারেন।এই লিংকটি আপনাকে এই ক্ষেত্রে সাহায্য করবে-https://youtu.be/n0ylBFc3tMc গ্রাহক আপনার কি বিষয়ে দুশ্চিন্তা হচ্ছে তা লিখে ফেলতে পারেন।বিষয়গুলো থেকে আপনার কি দুশ্চিন্তা হচ্ছে তাও লিখে ফেলতে পারেন।চিন্তাগুলো থেকে কি ধরণের অনুভূতি হচ্ছে তাও লিখে ফেলতে পারেন।এবার চিন্তাগুলো কতটা বাস্তবিক বা অবাস্তবিক তা ভেবে দেখতে পারেন।যদি অবাস্তবিক হয় তবে এর বাস্তবিক চিন্তা কি তাও ভেবে দেখতে পারেন।এছাড়াও আপনি রিলাক্সেশান টেকনিক ব্যবহার করতে পারেন।অতিরিক্ত চিন্তার সময় নিজেকে relax রাখার জন্য relaxation বা deep breathing করতে পারেন। মেডিটেশন বা Relaxation হল এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে শরীরকে শিথিল করা যায়। মানসিক ভাবে প্রাশান্তি লাভ করা যায়। দুচিন্তা,রাগ, আবেগ, হতাশা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে দীর্ঘ নিঃশ্বাস নেওয়ার ফলে মস্তিস্কে বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রবেশ করে মস্তিস্ককে অনেক শিথিল করে যার ফলে পরবর্তীতে আর ও ভাল ভাবে সমস্যা নিয়ে চিন্তা করা যায়।নিম্নের ভিডিও লিঙ্ক টি দেখলে আপনি মেডিটেশন বা relaxation সম্পর্কে আরও ভাল করে জানতে পারবেন। https://www.youtube.com/watch?v=JEg5t0WCILQ&feature=share আশা করি আপনাকে একটু হলেও সাহায্য করতে পেরেছি। ধন্যবাদ।মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও