প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। জ্বর আছে ? শিশুর কি বমি হয় ? শিশু কি খাবার খাওয়ার সময় বা পায়খানা করার সময় কান্নাকাটি করে ? আমাদের জানান। ঘন ঘন পাতলা পায়খানা হওয়াই ডায়রিয়া, যা সাধারণত ২৪ ঘণ্টায় তিনবার বা তারও বেশিবার হয়। অর্থাৎ মলে যদি পানির পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হয়, তবেই তাকে ডায়রিয়া বলে ধরে নেওয়া হয়। আবার পায়খানা বারবার হয়েও মল যদি পাতলা না হয়, তবে তা ডায়রিয়া নয়। অনেকসময় বাচ্চাদের পায়খানায় ব্যাক্টেরিয়াল বা প্রোটোজোয়াল বা হেলমিন্থিক ইনফেকশন হতে পারে।সেক্ষেত্রে ,পায়খানা পরীক্ষার মাধ্যমে তা নিশ্চিত করা যায় এবং সেই অনুযায়ী চিকিৎসা করলে ভাল হয়ে যাবে। তাই, আপনি প্রয়োজনে একজন শিশু বিশেষজ্ঞকে দেখিয়ে, ওনার নির্দেশমত শিশুকে ওষুধ খাওয়াবেন । এছাড়া, শিশুর ডায়রিয়া হলে কিছু জিনিষ মনে রাখবেন। প্রথমেই পানিশূন্যতা লক্ষ করুন: শিশুদের ডায়রিয়াজনিত পানিশূন্যতা মারাত্মক হতে পারে। এ সমস্যার লক্ষণগুলো খেয়াল করুন—শিশুর অস্থিরতা ও তৃষ্ণা খুব বাড়ে, চোখ গর্তে ঢুকে যায়, ত্বক শুষ্ক ও ঢিলে দেখায়। শিশু নিস্তেজ হয়ে গেলে বা তার প্রস্রাবের পরিমাণ কমে গেলে সেগুলো খারাপ লক্ষণ। যথেষ্ট খাওয়ার স্যালাইন দেওয়ার পরও এমন হতে পারে। খাওয়ার স্যালাইন কীভাবে দেবেন: শিশুকে বারবার স্যালাইন খাওয়াতে হবে।  স্যালাইন প্রতিবার মলত্যাগের পর দিতে হবে। বমি হলে ১০ মিনিট অপেক্ষার পর আবার স্যালাইন দিন। সব বয়সের জন্য স্যালাইন বানানোর নিয়ম কিন্তু একই, বয়স কম বলে আধা প্যাকেট বা কম পানিতে গুলে স্যালাইন বানাবেন না।ডাক্তার এর পরামর্শ অনুযায়ী জিঙ্ক খাওয়াতে হবে। স্যালাইনের পাশাপাশি অন্য খাবার: ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুকে ডাবের পানি, ভাতের মাড় ইত্যাদি দিতে পারেন। তবে বাজারের কোমল পানীয়, জুস, বেশি দেওয়া যাবে না। এ ছাড়া স্বাভাবিক সব খাবার খাওয়ানো যাবে। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও