প্রিয় গ্রাহক, আপনার বর্তমান মানুষিক অবস্থাটি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।কোন কোন বিষয় নিয়ে আপনি হতাশায় ভুগছেন সেগুলো খুজে দেখতে পারেন ও আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারেন।তাহলে সে বিষয়গুলো নিয়ে ভাবতে পারবেন এবং দূর বা সমধান করার একটা পথ পেয়ে যেতে পারেন। নিজের ভিতরের প্রতিভা,ইতিবাচক ও সম্ভাবনার দিকগুলো খুজে বের করে তা কিভাবে কাজে লাগান যায়,ভেবে দেখতে পারেন। নিজের প্রতি আত্মনির্ভরশীলটা বাড়াতে পারেন- নিজেকে বলতে পারেন আমি পারব,আমার অনেক ইতিবাচক দিক রয়েছে,একটু চেষ্টা করলেই আমি ভাল করতে পারব।যখনই কোন নেতিবাচক চিন্তা আসবে, সাথে সাথে তার ইতিবাচক কি হতে পারে তা ও ভাবতে পারেন। নিয়োমিত ব্যয়াম করতে পারেন এতে শরীর ও মন দুটাই ভাল থাকবে। ব্যায়াম আমাদের মস্তিষ্কের এন্ড্রোফিন নামক হরমোন ক্ষরণ করে এবং ভালো থাকার অনুভূতি তৈরি করে।  নিজের মাঝে কোন রাগ,খোভ,কষ্ট জমিয়ে না রেখে প্রকাশ করে ফেলতে পারেন, এতে অনেকটা হালকা বোধ হবে। অন্যের সাথে নিজের তুলনা করা করবেন না। কারণ আপনি একজন আলাদ মানুষ, আপনার বাস্তবতা ভিন্ন। সুতরাং গতকালের আপনার আজকের আপনার তুলনা করতে পারেন।গতকাল থেকে আজ আপনি কতটা ভাল আছেন, কতটা ভাল করেছেন... ভেবে দেখতে পারেন।  আপনার কষ্টগুলো ও হতাশা গুুলো বিশ্বস্থ কারো সাথে শেয়ার করতে পারেন,যিনি আপনার কথাগুলো নিরোপেক্ষ মন নিয়ে শুনবেন ও গোপনীয়তা বজায় রাখবেন।এতে অনেকটা হালকা বোধ হবে,আশা করি।এমন কেউ না থাকলে আপনি আপনার কষ্টের অনুভূতিগুলো ডাইরীতে লিখে রাখতে পারেন ও না পড়ে ছিরে ফেলতে পারেন,এতে ও অনেকটা হালকা বোধ হবে,আশা করি। আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আপনি নিচের কৌশলটি নিয়মিত চর্চা করতে পারেন- https://m.youtube.com/watch?v=ffEPAjcGSMU আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও