প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। বহুবিধ কারণে হার্ট দুর্বল হতে পারে । হাইপ্রেসার বা উচ্চ রক্তচাপের ফলে হৃৎপিণ্ডের কাজের চাপ বাড়ে। অধিক চাপে কাজ করতে করতে এক সময় হার্ট অবসাদগ্রস্ত হয়ে যায়। ফলশ্রুতিতে হার্ট দুর্বল হতে থাকে। তাই উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি। রক্তনালীতে কোলেষ্টেরল জমা হয়ে হৃৎপিণ্ডে রক্ত প্রবাহের স্বল্পতার জন্যে হার্ট দুর্বল হয়ে থাকে। কোলেষ্টেরল নিয়ন্ত্রণ, স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস, পরিমিত মাত্রায় কায়িকশ্রম, ক্ষেত্রবিশেষে বাইপাস অপারেশন ও রিং প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে চিকিৎসা গ্রহণ করে হার্টকে দুর্বলতা থেকে রক্ষা করা যেতে পারে। প্রতিদিন এক কাপ পরিমাণ আখরোট-জাতীয় ফল খেলে শরীরের রক্ত সঞ্চালনপ্রক্রিয়া কার্যকর হয়ে ওঠে। কেননা আখরোট-জাতীয় ফলে থাকে ওমেগা-৩ নামের চর্বি, যা বিভিন্ন ধরনের প্রদাহের বিরুদ্ধে শক্তিশালী অবস্থান নেয় এবং এর ফলে দূষিত রক্ত নিয়মিত পরিসঞ্চালিত হয়ে হার্টের গতি স্বাভাবিক রাখে। বেশি খান শিম, বরবটি : আলু কিংবা কলাই-জাতীয় খাবারের চেয়েও গুটিযুক্ত ফলধারী লতা, যেমন- শিম, বরবটি রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় এগুলো রাখতে পারেন। প্রতি দিনের খাদ্য তালিকায় ক্রমাগতভাবে যুক্ত করতে থাকুন পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবারের পরিমাণ।গরুর দুধে থাকা লো ফ্যাট হৃদযন্ত্রের ক্রিয়াবিরোধী কম ঘনত্বসম্পন্ন লিপ্রোপ্রোটিনের হার কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি দুধে থাকা ক্যালসিয়াম শরীরে জমে থাকা পুরু চর্বির স্তর কাটতে ভূমিকা রাখে। তাছাড়া আপনি একজন cardiology বিশেষজ্ঞের সাথেও যোগাযোগ করুন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও