প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া ফার্মেসী

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


প্রথমেই আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ও সাধুবাদ জানাচ্ছি আমাদের কাছে মানসিক সহায়তা চাওয়ার জন্য।


আপনার এই পদক্ষেপ প্রমাণ করে যে আপনি হাল ছেড়ে দেন নাই, আপনি চেষ্টা করছেন নিজেকে সহায়তা করার জন্য। আর কোন পরিস্থিতি থেকে বের হয়ে আসার জন্য এই ইচ্ছা শক্তি ও সচেতনতার জায়গাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি বুজতে পারছি আপনার পরিস্থিতিটা। আমি অনুভব করতে পারছি আপনার কষ্টের ও উদ্বেগ এর জায়গাটা। আপনি আপনার বর্তমান অবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে চান।


আপনি ভেবে দেখতে পারেন ঠিক এই মূহুর্তে আপনার জন্য কোনটা গুরুত্বপূর্ণ, আপনার পরীক্ষা নাকি ভালবাসার কথা চিন্তা করা। আপনি এক্ষেত্রে এই মূহুর্তে কোনটা আপনার অগ্রাধিকার তা ঠিক করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনি যদি সত্যি তাকে ভালবাসেন এবং মন থেকে তাকে চান তাহলে তাকে বিষয়টা জানাতে পারেন। বলার আগে তার থেকে অনুমতি নিতে পারেন যে আপনি তাকে কিছু বলতে চান এবং সে শুনবে কিনা খোলা মন নিয়ে। তবে খেয়াল রাখবেন আপনি যে কাউকে ভালবাসতেই পারেন, আপনার সেই স্বাধীনতা আছে।


একই সাথে আপনাকে অন্যের পছন্দটাকেও সম্মান করতে পারেতে হবে। আপনি যাকে ভালবাসেন সে আলাদা একটা মানুষ, তারও পছন্দ-আপছন্দ আছে, ভালো-লাগা মন্দ লাগা আছে। তার পছন্দকে সম্মান করা এটাও ভালোবাসার একটা প্রকাশ হতে পারে। আপনি তাকে এটা ও জানিয়ে রাখতে পারেন যে, আপনি তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাবেন, আপনি তাকে অনুরোধ করতে পারেন যে আপনার এই আগ্রহ যাতে আপনাদের মধ্যে থাকা বন্ধুত্বের সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোন প্রভাব না ফেলে।


আপনি নিজেকে সেই মানুষটার জায়গায় নিজেকে রেখে ভাবতে পারেন। মনে করুন যাকে আপনার ভাল লাগেনা এমন একটা মানুষ যদি আপনার কাছে আপনার থেকে ভালোবাসা চায় আপনি তাকে সেটা দিতা পারবেন কিনা??? এভাবে একটু ভেবে দেখতে পারেন। হ্যা এবং না দু-ধরণের উত্তরের জন্য প্রস্তুত থাকুন।


আর-একটা কথা মনে রাখবেন, একজন মানুষের থেকে ভালবাসা না পেলে বা ভালোবাসা পাননি বলে আর কারো থেকে পাবেন না এমনটা না। আবার আপনি ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য না, এমন ও না। অনেক মানুষ এমন আছে যারা আপনাকে ভালোবাসে, আপনার ভালো চায়। জীবন অনেক বড়। জীবনের পথে হাটতে হাটতে আপনি নিশ্চয়ই এমন কাউকে পেয়ে যাবেন যে আপনাকে ভালোবাসে আর আপনি ও তাকে ভালোবাসতে পারবেন।


সর্বপরি, আপনার যোগ্যতার দক্ষতার সাথে আপনার প্রত্যাশার একটা সামঞ্জস্য রাখুন। তাহলে জীবনে চলার পথে আপনাকে হতাশার সম্মুখীন হতে হবে না। আর চেষ্টা করতে থাকুন আপনার জায়গা থেকে, একবার না হলে আবার করুন, দেখবেন আপনি পারছেন এগিয়ে যেতে। ভালো থাকুন, আর নিজেকে সব থেকে বেশী ভালোবাসুন। কারণ আপনার থেকে আপনাকে বেশী আর কেউ ভালোবাসতে পারবেনা।


আপনাকে আবার ও ধন্যবাদ আমাদের কে বলার জন্য ও আমাদের কাছে সহায়তা চাওয়ার জন্য। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।


আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা।



প্রশ্ন করুন আপনিও