মায়া আপাতে আপনার মনের কথাগুলো শেয়ার করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ বোন। বুঝতে পারছি যে আপনি বেশ কষ্টের মধ্যে সময় পার করছেন। এবং আপনার এরকম সময়ে শুশুরবাড়ির অত্যাচার আরো বেশি কষ্টদায়ক। এই বিষয়টা থেকে মুক্তি পেতে হলে সবার আগে আপনাকেই কনফিডেন্ট হতে হবে। আপনি সবসময় যদি সবকিছু মেনে নেন তাহলে সবাই আপনার উপর অত্যাচার চালিয়েই যাবে। তাই যেখানে সম্ভব সেখানে দৃঢ়ভাবে প্রতিবাদ করুন। আপনার নিজের অধিকার আপনার নিজেকেই আদায় করে নিতে হবে। তবে খেয়াল রাখবেন যেন আপনার স্বামী আপনার সাপোর্টে থাকেন। তার সাপোর্টই আপনার বড় শক্তি। আর আপনার শুশুর বাড়ির লকেদের সাথে যোগাযোগের সময় নিম্নের পদ্ধতি অনুসরন করে দেখতে পারেন। যে কোন যোগাযোগের ক্ষেত্রে সবার আগে আপনি আপনার পর্যবেক্ষন তুলে ধরুন। কোন স্পেসিফিক ঘটনা তুলে ধরে আপনার পর্যবেক্ষণ তুলে ধরুন। খেয়াল রাখবেন যেণ আপনার পর্যবেক্ষণ জেনারেল না হয়ে যায় এবং পর্যবেক্ষণ বলতে গিয়ে আপনি যেন জাজমেন্টাল হয়ে না পড়েন।পরের ধাপে উক্ত ঘটনায় আপনার কেমন অনুভুতি হয়েছিল বা আপনার কেমন লেগেছিল সেটি উল্লেখ করুন। আপনার আবেগের জায়গাটা এখানে প্রকাশ করবেন। খেয়াল রাখবেন, এটা করতে গিয়ে আপনি যেন অন্যকে দোষ না দিয়ে ফেলেন। এবং অন্যকে আঘাত না দিয়ে ফেলেন।তৃতীয় ধাপে, আপনি আপনার কোন চাহিদা থেকে এই অনুভুতি প্রকাশ করেছেন তা বলুন। আপনার কি ভালোবাসারচাহিদা, না কি সম্মানের, নাকি কৃতজ্ঞতার চাহিদা। চাহিদাগুলো এখানে নির্দিষ্টভাবে প্রকাশ করুন। সবশেষে আপনি তাকে আপনার প্রত্যাশার জায়গাটা অনুরোধের স্বরে বলতে পারেন। আপনি তার কাছ থেকে কি ধরণের আচরণ আশা করছেন তা প্রকাশ করুন। পুরো বিষয়টা চর্চার বিষয়। একবারে হবে না। তাই সময় নিন, চর্চা করুন, তারপর কমিউনিকেট করুন। আশা করছিএতে কিছুটা হলেও উপকার পাবেন।আশা করছি এতে ভালো ফল পাবেন। আর কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদের লিখুন বোন।আপনার এবং আপনার অনাগত সন্তানের জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।মায়া আপা

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও