গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। বুকের ব্যথা বিভিন্ন কারনে হতে পারে। ব্যথার ধরনে দেখে এর কারন সম্পর্কে একটা ধারনা পাওয়া যেতে পারে। তবে বুকের ব্যথা কি কারনে হচ্ছে তা বুঝার পুর্বে কিছু বিষয়ে সম্পর্কে জানা জরুরী। যেমনঃ বয়স, কতদিন ধরে ব্যথা, বুকের কোন পাশে ব্যথা, ব্যথা কি নির্দিষ্ট জায়গায় হচ্ছে, ব্যথার সাথে অন্য কোন উপসর্গ রয়েছে কিনা ( যেমন, বমি, ঘেমে যাওয়া), ব্যথার তীব্রতা, প্রেসার, ডায়াবেটিস বা রক্তে চর্বির পরিমান বেশি হওয়া, ধুমপানের অভ্যাস, খাবার এর ধরন, বুকে ব্যথা হওয়ার আগে কাশি বা জ্বর ছিল কিনা।উপরোক্ত বিষয়ে জেনে কিছুটা ধারনা পাওয়া যায় যে বুকের ব্যথা গেস্টিক এর সমস্যার জন্য হচ্ছে নাকি হৃদপিণ্ডের সমস্যার জন্য অথবা ফুস্ফুস এর কোন সমস্যায় কিনা।গ্যাস্টিকের সমস্যা হলে নিম্নের নিয়ম মেনে চললে কিছুটা উপকার পাওয়া যাবেঃ১। প্রতিদিন ৮-১০ গ্লাস পানি পান করা।২। তৈলাক্ত, ভাজা পোড়া, বেশি মসলা কিংবা ঝাল খাবার না খাওয়া। ৩। সঠিক সময়ে খাবার খাওয়া এবং খাবার মিস না দেওয়া। ৪। ধূমপান পরিহার করা। তাছাড়া যাদের প্রেসার কিংবা ডায়াবেটিস এর সমস্যা আছে তাদের কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়ঃ১। প্রেসার এবং ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রনে রাখা। ২। বেশি দুশ্চিন্তা না করা, স্ট্রেস না নেওয়া।। ৩। সঠিক সময়ে এবং কমপক্ষে ৭ ঘণ্টা ঘুমানো। ৪। নিয়মিত ডাক্তার এর ফোলো আপ এ থাকা। উপরোক্ত নিয়ম মেনে চললেও যখন বুকে ব্যথা হবে তখন অবশ্যই হাসপাতাল এ যেতে হবে, প্রয়োজনিয় কিছু টেস্ট ( যেমন ইসিজি, এক্স রে) করে দেখতে হবে মুলত কি কারনে হচ্ছে এবং সেই অনুযায়ী চিকিৎসা নিতে হবে। আশা করি আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে পেরেছি। আর কিছু জানার থাকলে আমাদের কাছে লিখে পাঠান।পাশে আছি সবসময়, মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও