প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। নিজের পারিবারিক সম্পর্কর প্রতি সচেতন হয়ে এখানে সাহায্য চেয়েছেন তারজন্য আন্তরিক সাধুবাদ জানাচ্ছি আপনাকে। আপনি আপনার স্বামীর এমন আচরণে কষ্ট পাচ্ছেন, তা কখনো তাকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করেছেন কি? স্ত্রী হিসেবে অবশ্যই আপনি তার কাছ থেকে এমন আচরণ আশা করতেই পারেন, কিন্তু যদি উনি আপনার প্রত্যাশা গুলো নিজ থেকে না বুঝে থাকেন তাহলে আপনাকে নিজেই তাকে জানানো উচিত। আপনি তার কাছে কি চাইছেন, তার কাছ থেকে কেমন আচরণ প্রত্যাশা করেন তা তাকে খোলাখুলি বলার জন্য চেষ্টা করুন। নিজেই কোথাও ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করতে পারেন এবং তাকে জানাতে পারেন। আপনার স্বামীর মনের অনুভূতি বা তার প্রত্যাশার প্রতিও সহানুভূতিশীল থাকতে সচেষ্ট হোন। যেকোন সংসার এবং সম্পর্ক সুন্দর করে গড়ে তোলা ও চালিয়ে নেওয়ার জন্য দুপক্ষেরই সমান ভূমিকা প্রয়োজন। পারস্পরিক বোঝাপড়া, শ্রদ্ধাবোধ, সম্মান, যত্ন, স্যাক্রিফাইস, কম্প্রোমাইজ, ভালোবাসা ইত্যাদি থাকলেই সেটা আদর্শ এবং সুন্দর সম্পর্ক হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। তাকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করে দেখতে পারেন যে তার কিছুটা এফোর্ট আপনার ভালো থাকার জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। এবং তাকে বোঝানোর পাশাপাশি আপনি নিজেও এফোর্ট দিতে চেষ্টা করুন। কষ্ট পেয়ে দূরে সরে না এসে চেষ্টা করে দেখতে পারেন কিভাবে আরও ভালোভাবে নিজের মনের মতো করে সব গুছিয়ে নিতে। তাহলে আপনার স্বামীও আপনাকে দেখে কিছুটা রিয়ালাইজ করতে পারবে। পাশাপাশি আপনি নিজের প্রতি যত্নশীল হবার চেষ্টা করে দেখবেন কি? নিজের জন্য আলাদা করে সময় বের করে নিজের যত্ন নিন৷ নিজের মন ভালো রাখতে পছন্দ ও ভালোলাগার কাজগুলো করতে পারেন। মন ও শরীর দুটোই যাতে ভালো থাকে, সেজন্য মেডিটেশন এবং ফিজিক্যাল এক্সারসাইজ করতে পারেন। পরিমিত ঘুম ও বিশ্রাম নিশ্চিত করতে চেষ্টা করে দেখুন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও