প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। ঘামাচির জন্য নিম্নের ঘরোয়া পদ্ধতি বেশ উপকৃত বা মাত্র ৩ দিন ব্যাবহারে ঘামাচি ৭০% কমে যায় ( তবে যদি ঘর্ম গ্রন্থি সমুহে ইনফেকশন হয়ে থাকে তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শে ভাল- এন্টিবায়টিক সেবন করতে হবে এবং অতিরিক্ত চুলকানির জন্য এন্টি-হিসাটামিন গ্রোফের ঔষধ সেবন করা ভাল ) খাবার লবন ৩/৪ চামচ + বেকিং পাউডার ১ চামচ + অরেঞ্জ জুস এক কাপ ( অরেঞ্জ না থাকলে লেবুর জুস আধাকাপ + আধা লিটার ঠাণ্ডা পানিতে মিশিয়ে সারা শরীরে নরম সুতির কাপড় বা স্পঞ্জ দ্বারা মুছে নিন প্রতি দিন ২/৩ বার = দেখবেন ৩ দিনেই প্রায় ভাল হয়ে গেছেন। টেল্কম পাউডার — ঘামাচির জন্য উপকারি – বিশেষ করে যে সকল টেল্কম পাউডারে লেবিলিন ( drying milk proteins ) এবং ট্রাইক্লসেন থাকে তাহলে ইহা ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ থেকে রক্ষা করে – সেই সাথে যদি উক্ত পাউডারে ম্যান্থল মিস্রিত থাকে তাহলে ইহা শান্তি দায়ক অর্থাৎ চুলকানি নিবারন করে । তবে মনে রাখবেন সাধারণ টেল্কম পাউডার ঘামাচি কমায়না তবে সামান্য ঝালা পোড়া ও চুলকানি নিবারন করে মাত্র । জীবন-যাপনপদ্ধতি গরমে হালকা, টিলেঢালাপোশাকপরতেহবে এবং শীতেঅতিরিক্তপোশাকপরাথেকেবিরতথাকতেহবে ঠান্ডা-ছায়াযুক্তস্থানেবেশিথাকতেহবে।ঘুমানোরজায়গাঠান্ডাএবংবাতাসচলাচলকরতেপারেএমনহতেহবে গোসলের পর তোয়ালে দিয়ে গা মোছার পরিবর্তে ঠাণ্ডা বাতাসে গা শুকানোর চেষ্টা করুন। এতে আপনার শরীর অপেক্ষাকৃত অধিক ঠাণ্ডা হবে এবং দীর্ঘসময় আপনাকে ঘাম থেকে বিরত রাখবে। ডাক্তার এর পরামর্শ ছাড়া মলম ও ক্রিম ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে.. আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও