প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার বাচ্চার বয়স কত?একটি নরম সুতি কাপড় বা গজ নিন। সামান্য কুসুম গরম পানিতে কাপড়টি ভিজান। এই পানি কখনোই সহ্যের অতিরিক্ত গরম হওয়া চলবে না। পানি বেশি গরম হলে শিশুর জিহ্বা পুড়ে যাবে।এবার শিশুর মুখ হা করান। শিশুর মুখ খোলার সবথেকে ভাল উপায় হল শিশুর নিচের ঠোঁট আস্তে করে নিচের দিকে নামান। এবার কুসুম গরম পানিতে ভেজানো কাপড়টি আপনার তর্জনীতে পেঁচিয়ে নিন। এবার আঙুল দিয়ে জিহ্বা পরিষ্কার করুন। জিহ্বা আস্তে আস্তে বৃত্তাকার গতিতে পরিষ্কার করুন। খেয়াল রাখুনশিশুযেন ব্যথা না পায়। এই পদ্ধতিতে জিহবার সব অবাঞ্ছিত ময়লা পরিষ্কার করে আনুন।অনেক সময় দেখবেন শিশুর জিহবায় অনেক ময়লা জমে আছে। সেক্ষেত্রে বার বার একই কাপড় দিয়ে জোরে জোরে ঘষবেন না। প্রয়োজন হলে আঙুল একবার বের করে এনে কাপড়ের পরিষ্কার অংশ গরম পানিতে ভিজিয়ে আবার মুখে আঙুল দিয়ে জিহ্বা পরিষ্কার করুন।আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও