প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।কবে থেকে আপনার মাথায় খুশকি সেটা আমাদের জানালে ভালো হতো। আপনাকে কিছু প্রশ্ন করি, আপনি এসবের উত্তর আমাদের জানাতে হবে না। আপনি নিজেই এগুলো নিয়ে ভেবে নিজের জীবন অভ্যাস পরিবর্তন করবেন, কেমন? আপনার কি নিয়মিত ৬-৮ ঘণ্টা ঘুম হয়? আপনি কি দিনে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করেন? সপ্তাহে অন্তত ৩দিন শ্যাম্পু করেন? যদি এর কোনটাই না হয়, তবে এই অভ্যাসগুলো গড়ে তুলুন। সপ্তাহে ৩ দিন মাথায় হট অয়েল ম্যাসাজ করে ১ ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করবেন। চুল পড়া বন্ধ করতে সপ্তাহে একদিন মেহেদি বাটা দিবেন। ১ ঘণ্টা রেখে মাথা ধুয়ে ফেলবেন। আর খুশকি দূর করতে, প্রতিদিন গোসল করার ১ ঘণ্টা আগে মাথায় ২ টেবিল চামচ লেবুর রস লাগাবেন। এরপর গোসল করে ১কাপ লেবুর রস ১মগ পানিতে মিশিয়ে সেই পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলবেন। এটা যতদিন খুশকি না যাবে ততদিন টানা করতে হবে। সপ্তাহে ১ দিন আপনার ব্যবহারি তোয়ালে, চিরুনি, বিছানা চাদর, বালিশের কভার ধুয়ে দিন। দিনে অন্তত ২বার চুল আঁচড়ান।এতে একটু সময় লাগলেও খুশকি চলে যাবে, চুল পড়াও বন্ধ হবে।তৈলাক্ত ত্বকে লোমকূপ বড় হয়ে যায়। তেল জমে সেসব বন্ধ হয়ে ব্রণও ওঠে। তাই প্রতিদিন ভালোভাবে ত্বক পরিষ্কার করতে হবে। বাড়িতে বসেই ত্বকের যত্ন নিতে পারেন। শসার রস তৈলাক্ততা দূর করতে খুবই কার্যকর। প্রতিদিন বাইরে থেকে এসে শসার রস দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে পারেন। এ ছাড়া স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করতে চাইলে এর সঙ্গে চালের গুঁড়া মিশিয়ে নিলেই হবে। যাঁদের মধুতে অ্যালার্জি নেই, তাঁরা সামান্য মধুও মিশিয়ে নিতে পারেন এই মিশ্রণে। সপ্তাহে দুই দিন এই প্যাক ব্যবহার করলে ত্বক পরিষ্কার হবে। ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডস দূর হয়ে যাবে। খেয়াল রাখতে হবে, ব্রণ থাকলে স্ক্রাব করা যাবে না।সার রসের সঙ্গে কর্নফ্লাওয়ার বা লাল আটা মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে প্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এটি মুখে ও গলায় ব্যবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে। লোমকূপ বড় দেখানোর সমস্যা হলে একটু বাড়তি যত্ন নিতে হবে। এ জন্য ডিমের সাদা অংশ মুখে লাগিয়ে এরপর টিস্যু পেপার চেপে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ধীরে ধীরে টিস্যু পেপার তুলে পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে ফেলুন। ত্বকে টানটান ভাব চলে আসবে। তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীদের মাথার ত্বকও তেলতেলে হয়। ময়লা জমে বেশি। নিয়মিত যাঁদের বাইরে বের হতে হয়, তাঁরা প্রতিদিন মৃদু ধরনের শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। তা না হলে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন শ্যাম্পু করা উচিত। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও