প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। চিন্তা আমাদের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি দিক । আমাদেরকে জেগে থাকার সময়টিতে প্রতিমুহূর্তে বিভিন্ন বিষয়ে চিন্তা করতে হয় । চিন্তা বেশী পরিমানে হলে বা দুশ্চিন্তা হলে তা সমাধানের চেস্টা করতে পারেন । রিলাক্সেশন করতে পারেন । আপনার মনের চিন্তাগুলো বিশ্বস্ত কাউকে বলতে পারেন ।এতে অনেকটা হালকা বোধ হবে, আশা করি। আপনার মনে যদি অস্বাভাবিক কোন চিন্তা আসে তাহলে সেটি বাস্তবে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু তা ভেবে দেখতে পারেন । আপনি আপনার মেধা ও যোগ্যতার বলে যে কোন অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে পারবেন,নিজের উপর এই বিশ্বাস রাখতে পারেন। অতীতের সফলতার কথা মনে করতে পারেন,তা যতই ছোট হোক না কেন,এটি আপনাকে সমনে এগানো শক্তি যোগাবে। টেনশনের জন্য আপনার মনে কি কি চিন্তা আসে তা খুজে বের করতে পারেন।চিন্তাগুলো একটা কাগজে লিখে রাখতে পারেন,তাহলে আপনার টেনশানে কারনগুলো আর ভাল করে বুঝতে পারবেন। বিশ্বস্থ কারো সাথে টেনশনের কারনগুলো নিয়ে কথা বলতে পারেন,এতে নিজেকে অনেকট হালকা বোধ হবে,আর সমাধানের একটা পথ ও পেয়ে যেতে পারেন। টেনশানের সময় নিজেকে রেলাক্স করতে ড্রিপ ব্রেডিং করতে পারেন,এটি আপনার মস্তিষ্কে অক্সিজেনের পরিমান বাড়িয়ে আপনাকে শান্ত করতে ও সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে। যখনেই কোন নেতিবাচিক চিন্তা আসবে তখন তার ইতিবাচিক চিন্তা কি হতে পারে তাও ভাবতে পারেন।তাহলে আপনার মানুষিক চাপ কমবে ও আপনি কাজ করার মটিভেশন পাবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও