প্রিয় গ্রাহক আপনাকে ধন্যবাদ। -ডায়াবেটিস এর সমস্যা থাকলে খালি পেটে কাচা রসুন খাওয়া যাবে অবশ্যই। তবে সেটি পরিমিত পরিমানে ।এ ছারাও কি কি খাওয়া যাবে তার একটি তালিকা দিচ্ছি-. শক্তি প্রদানকারী খাদ্য (ক্যালরি হিসেবে) : প্রতি কেজি দৈহিক ওজনের জন্য ২৫-৩০ কিলোক্যালরি/প্রতিদিন । যাদের দৈহিক স্থূলতা আছে (বিএমআই ২৫-এর বেশি) তাদের জন্য ৩৫ কিলোক্যালরির কম।. শর্করা জাতীয় খাদ্য: মোট শক্তির ৫৫%-৬০% শর্করা থেকে আসতে হবে। এর প্রধান উৎস হতে পারে ভাত, রম্নটি, ডাল, মাছ-মাংস ও শিম ইত্যাদি। পরিশোধিত শর্করা যেমন_চিনি, মধু, ময়দা, গুড়, মিছরি, বেকারির তৈরি বিভিন্ন রকম খাদ্যদ্রব্য-পাউরম্নটি, কেক, বিস্কিট ইত্যাদি ও তেলে ভাজা খাবার-যতটা সম্ভব ত্যাগ করতে হবে।. আমিষ জাতীয় খাদ্য: প্রতি কেজি দৈহিক ওজনের জন্য ৮ গ্রাম করে আমিষ প্রতিদিন খেতে হবে। গর্ভধারণ ও বাচ্চাকে সত্মন্যদানের সময় এর পরিমাণ কিছুটা বাড়াতে হবে (১২ গ্রাম/কেজি/দিন)। মাছ সবচেয়ে ভাল। তারপর মাংশ (বিশেষত মুরগির। দই ও দুধ খাবেননিয়মিত। লাল মাংশ (গরম্ন, খাসির মাংশ) বর্জন করাই উত্তম।ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যে আমিষ জাতীয় খাদ্য ও উপাদান সমূহ সবচেয়ে কম ঝুকিপূর্ণ।. চর্বি জাতীয় খাদ্য: প্রতিদিনের মোট প্রয়োজনীয় ক্যালরির ২০%-২৫% চর্বি থেকে আসলে ভাল। এর উৎস হতে পারে রান্নার তেল, ঘি, ডিম ইত্যাদি।নিচের তালিকার খাদ্য দ্রব্যগুলো ডায়াবেটিস রোগীরা কোন প্রকার ক্যালরি হিসেব ছাড়াই খেতে পারবেন। ডায়াবেটিস রোগী তার রম্নচি ও অভ্যাস মতো এর যেকোন এক একটি খাবার প্রতিদিনই খেতে পারবেন।* চা বা কফি (চিনি ছাড়া)* মসলা (ধনে, জিরা, হলুদ, মরিচ, আদা , রসুন, পেঁয়াজ ইত্যাদি)।* খাবারের সুগন্ধ ( ভেনিলা, স্ট্রবেরি)* শাকসবজি (পালং শাক, লাল শাক, পুঁই শাক, কলমি শাক, ডাঁটা শাক, কচু শাক, লাউ শাক, কুমড়ো শাক, পাট শাক, হেলেঞ্চা শাক, ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা, ওলকপি, টমেটো, কাঁচা পেঁপেঁ, শশা, খিরা, উচ্ছে, করলা, ঝিঙা, ধুন্ধল, চাল কুমড়া, ডাঁটা, লাউ, সজনে, বেগুন, মরিচ, কলার মোচা ইত্যাদি)।* ফল (কালো জাম, লেবু, আমড়া, বাতাবি লেবু, কামরাঙ্গা, বাঙ্গি, জামরম্নল, আমলকি, কচি ডাবের পানি ইত্যাদি)।* আচার (মিষ্টি ছাড়া)* শর্করা বিহীন মিষ্টি* শর্করা বিহীন মিষ্টি খাবার_সুকরোল, স্যাকারিন ইত্যাদি।হিসাব মতো নিয়মিত খাওয়া যাবে* ফল : আম_ ছোট ১টি আমের অর্ধেক (৩০ গ্রাম), পাকা পেয়ারা ১টি (বড়)লিচু - ৬ টি (বড়)আতা ফল- ১ টি (৩০ গ্রাম)কাঁঠাল _ মাঝারি ৩ কোয়া (৫০ গ্রাম)কমলা _ ১ টি মাঝারি (৬০ গ্রাম)আপেল _ ১ টি, মাঝারি (৪০ গ্রাম)মাল্টা _ ১ টি মাঝারি (৫০ গ্রাম)পাকা পেঁপে _ ৩. র্৫র্ /র্২র্ /০.র্৫র্ মাপের ১টিপাকা কলা _১ টির অর্ধেকনারিকেল _ ২ চামচ কোরানো (৬ গ্রাম)মিষ্টি কুল _ মাঝারি ৬ টি (২৫ গ্রাম)তরমুজ _ মাঝারি ১ টুকরা (৪০ গ্রাম)কেশর আলু_ মাঝারি ১ টি (৩০ গ্রাম)পাকা বেল _ আধা কাপ (৩০ গ্রাম)প্রতিদিন এসব ফলের যেকোন ১ টি উলেখিত পরিমাণে খাওয়া যাবে। তবে একাধিক ফল একদিনে খাওয়া উচিত হবে না।আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে , মায়া আপাকে জানাবেন।রয়েছি পাশে সবসময়, মায়া আপা।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও