ধন্যবাদ মায়া আপা। আমার মনে হয় ভালো স্বামী হওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম শর্ত হচ্ছে অনেক কেয়ারিং হওয়া। আমি সবসময় তাকে আমার চাওয়া পাওয়া গুলো জানিয়েছি। তার গুলোও বোঝার চেষ্টা করেছি। কিন্তু সে সেকেলে মানসিকতা বিশিষ্ট মানুষ হওয়ায় আমাকে কখনো গুরুত্ব দিয়ে বোঝার চেষ্টা করেনি। তার কাছে আমাকে টাকা পয়সা দিয়ে সুখী রাখার নামই ভালোবাসা। কিন্তু আমি তো সেটা চাই না। আর তাছাড়া ছোটোবেলা থেকেই আমি ওকে খুবই অপছন্দ করি। সে খুবই জেদি, একরোখা আর বেয়াদব টাইপ ছেলে। সে আমার ফ্যামিলিকে কনভিন্সড করে একরকম কোণঠাসা করে আমাকে বিয়ে করতে বাধ্য করেছে। একারণেই ওর প্রতি আমার ক্ষোভ। আর সেজন্যই আমি মন থেকে ওকে মেনে নিতে পারি না। ওর প্রতি আমার ভালোবাসা তো দূরে থাক, সহানুভূতিও কাজ করে না। মাঝে মাঝে মরে যেতে ইচ্ছা করে। কিন্তু সেটা তো সম্ভব না। আমি ওর সাথে থাকলে আমার নিজেকে শাস্তি দেয়া হবে। আমি আর পারছি না

প্রিয় গ্রাহক,আপনাকে ধন্যবাদ। আমি বুঝতে পারছি আপনার পক্ষ থেকে অনেক চেষ্টা করেছেন যা খুবই প্রশংসনীয়। তারপর ও আপনার হাসব্যান্ড কে মনের মত করে  পাচ্ছেন না. এটা আসলেই অনেক হতাশাজনক. আপনার পুরো জীবন এখন ও পরে আছে. মরে  যাওয়াটাই সমাধান না. বুঝতে পারছি অনেক কষ্ট থেকেই আপনি এটা বলছেন। গ্রাহক, আপনার বা তার পরিবারে এমন কেউ কি আছে যে আপনার এই সমস্যাতে হেল্প করতে পারে। আপনার হাসব্যান্ড যার কথা শুনবে এমন কেউ আছে? তাকে কি আপনার অনুভূতি এবং চাওয়াটা বলতে পারবেন? ভেবে দেখবেন।কোন প্রশ্ন থাকলে অবসসই মায়া আপাকে জানাবেন।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও