প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া ফার্মেসী

সাদা জিহ্বা সাধারণত ক্ষণস্থায়ী হয়ে থাকে। তবে কোন কোন ক্ষেত্রে এটি দীর্ঘস্থায়ী এবং বার বার হতে পারে। জিহ্বার প্যাপিলার প্রদাহের কারণে সাদা জিহ্বার সৃষ্টি হয়। সূক্ষ্ম খাদ্যকণা, ব্যাকটেরিয়া এবং মৃত কোষ প্রদাহজনিত প্যাপিলাতে আবদ্ধ হয়ে সাদা আবরণ সৃষ্টি করে থাকে। অনেক কারণে জিহ্বায় প্যাপিলার প্রদাহ হতে পারে। যেমন : ধূমপান, মদ্যপান, মৃদু ডিহাইড্রেশন বা পানিশূন্যতার কারণে প্যাপিলার প্রদাহ হয়ে সাদা জিহ্বা সৃষ্টি হতে পারে। ঘুম থেকে ওঠার পর অনেকেই মাঝে মাঝে সাদা জিহ্বা দেখতে পান। ঠা-াজনিত কোন অসুখ বা এলার্জির কারণে এমন হতে পারে। আবার ক্রমাগত রাতের বেলায় মুখ দিয়ে শ্বাস নেয়ার কারণেও এমনটি হতে পারে। সাধারণভাবে সাদা জিহ্বার এ অবস্থার অবসানে যা করণীয়, তা হলো- (ক) জিহ্বা ব্রাশ করতে হবে। (খ) ধূমপান বন্ধ করতে হবে। (গ) প্রচুর পানি পান করতে হবে। (ঘ) আঁশযুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে সাধারণ কারণ ছাড়াও বিভিন্ন অসুস্থতার কারণে জিহ্বা সাদা হতে পারে। সেগুলো হলো- ১। ক্যান্ডিডোসিস ২। ক্রনিক অসুস্থতা বা সবসময় অসুস্থ থাকা ৩। এপস্টেন বার ভাইরাস ৪। হেয়ারী টাং বা জিহ্বা ৫। রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার সমস্যা বা এইডস হলে ৬। লিউকোপাকিয়া ৭। ডায়রিয়ায় পানি শূন্যতা বেশি হলে ৮। অ্যাজমা রোগীদের ক্ষেত্রে স্টেরয়েড ইনহেলার ব্যবহারের কারণে। ধূমপান বা এলকোহল সেবন না করলেও জিহ্বার রং সাদা হতে পারে। এক্ষেত্রে রোগীর ক্রনিক ওরাল থ্রাশ থাকতে পারে। ক্রনিক ওরাল থ্রাশ হলে যথাযথ চিকিৎসা গ্রহণ না করলে সমস্যা থেকেই যাবে। এছাড়া যেসব ওষুধ সেবনের কারণে মুখ শুষ্ক হয়ে যায় সেক্ষেত্রে জিহ্বা সাদা হতে পারে। ওষুধ সেবন শেষ হয়ে গেলে জিহ্বা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে। সাধারণ কারণ ছাড়া জিহ্বা সাদা হলে অবশ্যই আপনাকে বুঝতে হবে আপনি কোন না কোন শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত। হয়ত অসুখটি সম্পর্কে এখন পর্যন্ত আপনি জানেন না বা আপনার সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে না। তাই কোন কিছুকে অবহেলা করা ঠিক নয়।

সমস্যা নিয়ে বসে থাকবেন না !

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রি বিশেষজ্ঞ পরামর্শ পেতে

প্রশ্ন করুন এখনই

মায়া অ্যাপে পড়ুন