প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক , আপনার বয়স কত? কতদিন ধরে আপনার এই সমস্যা হচ্ছে? আপনার কি এসিডিটি আছে? এসিডিটির জন্য খাবারে অরুচি এবং ক্ষুদামন্দা হতে পারে । রুচি বাড়ানোর জন্য তেমন কোন ঔষধ নাই। আপনি আপনার খাওয়ার ধরন পরিবর্তন করতে পারেন। রান্নার ধরন পরিবর্তন করতে পারেন। অথবা যেসব খাবার আপনার  খেতে ইচ্ছা করে তা আপনি খেতে পারেন। আপনি সুস্থ থাকার জন্য exercise অথবা yoga করতে পারেন। দুশ্চিন্তা করবেন না। পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিবেন। স্বাভাবিক নিয়মে অরুচি হলে নিচের পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করতে পারেন : -- দৈনন্দিন কাজগুলো সময় মেনে করুন। যেমন কাজের জন্য খাওয়া এবং ঘুমের সময় যেন প্রভাবিত না হয়। - যেসকল খাবার গ্যাস্ট্রিক এর সমস্যা বাড়িয়ে দেয় তা এড়িয়ে চলতে হবে - তেল মশলা এবং চর্বি যুক্ত খাবার ,অতিরিক্ত চা,কফি,টক জাতীয় ফল খাবেন না - একসাথে অনেক খাবার না খেয়ে বার বার অল্প অল্প করে খান। - খাওয়ার ঠিক পরেই শুয়ে পরা ঠিক না। -প্রতিদিন খাবার আগে লবণ দিয়ে একটু আদা চিবিয়ে খান । এতে ক্ষিধে বাড়বে এবং মুখের রুচি ফিরে আসবে। - পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার বেছে নিন যাঁরা বেশি খেতে পারছেন না বা খেতে ইচ্ছে করে না, তাঁরা এমন খাবার বেছে নিন, যা কম খেলেও বেশি পুষ্টি দেবে। যেমন, শাকসবজি বা ফলমূল, গোটা শস্য, বাদাম, বীজজাতীয় খাদ্য এবং আমিষ। যেমন, মাছ, মাংস বা দুধ। চিপস, বেকিং করা খাবার, ফাস্ট ফুড পেটের ভরা ভরা ভাব আরও বাড়াবে এবং খিদে আরও কমিয়ে দেবে। দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার এবং মাছ ও মুরগির আমিষ মস্তিষ্কের খিদে কেন্দ্রকে উজ্জীবিত করে। একবারে বেশি পরিমাণে না খেতে পারলে বারবার অল্প পরিমাণে খান। - খাবারকে দৃষ্টিনন্দন করুন বিজ্ঞানীরা বলেন, আমরা কেবল মুখ ও জিভ দিয়ে খাই না, চোখ-নাক দিয়েও খাই। মানে খাবারের স্বাদ কেবল নয়, গন্ধ, রং ও চেহারাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। তাই খাদ্য প্রস্তুতের সময় খাবারের চেহারার দিকে মনোযোগ দিন। বিভিন্ন রং ও স্বাদ যোগ করুন। যেমন—ক্যাপসিকাম, লেটুস, টমেটো ও বিভিন্ন রঙের ফলমূল। গন্ধ বাড়াতে লেবুর রস, সিরকা, সরিষা, বিভিন্ন মসলা। - খাওয়ার সময় বেশি পানি নয় পানি বা তরল খাবেন দুটি আহারের মধ্যবর্তী সময়ে। আহারের মাঝখানে নয়। খাওয়ার সময় বেশি পানি বা পানীয় খেলে পেট অল্পতে ভরে যাবে। কফি-চা-জুস ইত্যাদি বেশি গ্রহণ করলেও খাবারের ইচ্ছে কমে আসে। প্রতিদিন কিছু ব্যায়াম বা শারীরিক পরিশ্রম করুন। এতে মেটাবলিজম বাড়বে এবং খিদে বাড়বে। -  অনেকেই রুচি বাড়ানোর জন্য নানা ধরনের ভিটামিন বা টনিক খেয়ে থাকেন। আদতে ভিটামিন বড়ি বা টনিক রুচি বাড়ায় না। তবে একমাত্র যে ভিটামিন রুচি বাড়াতে কিছুটা সাহায্য করে তার নাম ফলিক অ্যাসিড বা ফলেট। গবেষকেরা দেখিয়েছেন যে ফলিক অ্যাসিড রুচি কেন্দ্র বা এপিটাইট সেন্টারকে উজ্জীবিত করতে পারে। এই ভিটামিন পাবেন গাঢ় পাতাবহুল সবজি যেমন শাক, সরিষাশাক, বাঁধাকপি, বিট, বীজজাতীয় শস্য ইত্যাদিতে। এ ছাড়া পাবেন কলিজা ও কমলার রসেও। এরপরও যদি আপনার সমস্যা থাকে ,তবে একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।উনি আপনাকে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা - নিরীক্ষা করে ,এর কারন বের করে উপযুক্ত চিকিৎসা দেবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রিতে শারীরিক, মানসিক এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন Maya অ্যাপ থেকে। অ্যাপের ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bit.ly/38Mq0qn


প্রশ্ন করুন আপনিও