প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া শপ

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


আমার বয়স ২০ বছর বিয়ে হইছে ৮ মাস বাসা থেকেও বিয়ে তাড়াতাড়ি দিয়েছে কারন সাময়িক আমি মানুষিক সমস্যায় ভুগছি ১২/১৩ মাস যাবত আগেও আমার এমন হয়েছে আমি এর জন্য ডাক্তার দেখিয়েছি ডাক্তার বলেছে দুঃশ্চিন্তার কারনে এমন হইছে আগে ঘুম আসত না ঘুমের অনেক অসুধ খাওয়ার পরেও  পরে ডাক্তার এর পরামর্শ নিয়ে আমি কিছুটা সুস্থ হই এখন হঠাত আমার বদমেজাজ বেড়েছে কাওকে ক্ষমার চোখে দেখতে পারি না কাওকে আমার শ্য হচ্ছে না ঘরের এমন কি আমি খুব ছোট খাট ব্যাপার নিয়ে সবার গায়ে পর্যন্ত হাত তুলতে যাই সেটা করতে কেউ বাধা দিতে আমি নিজেকে মারাত্মক ভাবে আঘাত করি আমি কি করব?  এর মধ্যে আমি অন্তঃসত্ত্বা ৩ মাস আমার স্বামীও হঠাত আমার উপরে রেগে গেছে তার পক্ষে আমাকে ছার দেওয়া আর সম্ভব হচ্ছে না হয়তো তার কটু ও তিতা তিতা কথা গুলা ঘুরে ঘুরে আমার মাথায় আসে আমার তখন মরে যেতে ইচ্ছা করে আমি কি করব এই অবস্থায়?

প্রিয় গ্রাহক, 

আপনার মনের অনুভূতি গুলো আমাদের কে বলার জন্য ধন্যবাদ। আপনিযে সচেতন হয়ে নিজের  আচরণের পরিবর্তন আন্তে চাচ্ছেন তা খুবই প্রশংসনীয়। আপনার এই অবস্থায় আপনি বাস্তবিক চিন্তা যে করছেন সেটা থেকেই নিজের পরিবর্তন আন্তে পারবেন। 

আপনার মানসিক অবস্থা ভালো না, অনেক দুশ্চিন্তা হয়, কাউকে সহ্য না হলে আপনি মারতেও যান। আপনার স্বামী আপনাকে সাপোর্ট দিলেও মাঝে মাঝে ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে যায়।  আমি অনুভব করতে পারছি আপনার কষ্টের জায়গাটা।  

গ্রাহক, আপনার কি নিয়ে দুশ্চিন্তা হয়? আপনি এখন ও ডাক্তারের পরামর্শ নিচ্ছেন  কি? এই প্রশ্নের উত্তর গুলো পেলে আপনাকে হেল্প করতে সুবিধা হবে। কাছের বিশ্বস্ত কারো সাথে আপনার কথা গুলো শেয়ার করতে পারেন, এতে আপনি হালকা অনুভব করবেন। ডাইরিতে ও   ওয়ারেন,আপনার অনুভূতি গুলো এতেও আপনার কষ্টের অনুভুতিটা কমবে। তবে অবসসই পেজ গুলো ছিড়ে ফেলবেন। মন ভালো থাকে এমন কিছু করতে পারেন যেমন- গান শুনা, বই পড়া, মুভি দেখা।  প্রকৃতির সাথে সময় কাটানো। ফ্রেন্ড দেড় সাথে সময় কাটানো এতে আপনার একাকিত্ব কমবে।

আপনি বলেছেন যে আপনি প্রেগন্যান্ট, এই অবস্থায় মানসিক ভাবে সুস্থ থাকা খুবই জরুরি। কারণ মানসিক সাস্থের সাথে শারীরিক সাস্থের অনেক সম্পর্ক আছে। আপনার মধ্যে যে মানসিক অস্থিরতা কাজ করে এর জন্য কাউন্সেলিং সার্ভিস নিতে পারেন। একজন কাউন্সিলর আপনাকে হেল্প করতে পারবে আপনার আচরণ এবং আবেগ গুলো নিয়ে কাজ করবে।  

আপনি যদি কাউন্সেলিং সার্ভিস নিতে চান তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনের ৫ম তলায় এডুকেশনাল এন্ড কাউন্সেলিং সাইকোলজি বিভাগে যোগাযোগ করতে পারেন। ফোন নো: ০১৯৬৭৮৬৭৯৩৩

আশা করি আপনি উপকৃত হয়েছেন। 

মায়া 


প্রশ্ন করুন আপনিও