আমার বয়স এখন ২২ বছর।আমি একজন ছাত্র। আমি ২০১৬ তে রিলেশন করে একজনের সাথে বিয়ে হয়ছে। সে আমাদের বাসায় ৩-৪ মাস থাকার পর সে চুরি করে বাবার বাড়ী চলে যায়।আমি অনেক বার বলার পরও চলে আসেনি। আমাকে উলটো শরিয়ত বাইরে গালাগাল দিত। ওর দীর্ঘ সময় অনুপস্থিতিতে আমার আরেক জনের সাথে রিলেশন হয়ে যায়। সে আমার সাথে সতিনের ঘর করার জন্য রাজি ছিল।তারপর আমি ওকে দশ লক্ষ টাকা কাবিন দিয়ে বিয়ে করেছি। বিয়ের পর ও আমাকে বলে, একটা মানুষের দুইটা বউ থাকতে পারেনা। এখন দুজনেই আমার জন্য থানায় অভিযোগ করছে। আমি এখন নিঃস্ব। কাউকে টাকা দেওয়ার মত টাকা আমার নেই।কেননা পরে যেটা বিয়ে করছি সেটা বলে কি হয় আমাকে না হয় ওকে ডিভোর্স দাও। এখন অামি যে কাউকে ডিভোর্স দিতে গেলে আমার তো মোহরনার টাকা দিতে হবে।আমার পক্ষে এতটাকা দেওয়া সম্ভব না। এখন আমার চারপাশ অন্ধকার। আমি জানিনা কি করব।মন চাই শুধু আত্মহত্যা করতে। বিষাদে ভরে গেছে আমার জীবন।

প্রিয় গ্রাহক, আপনার মনের কথা গুলো বলার জন্য ধন্যবাদ।  আপনার কিছু বিষয়ের কথা বলেছেন। আপনি দুটি বিয়ে করেছেন, তবে এখন পরিস্থিতির শিকার হয়ে বুঝতে পারছেননা কি করবেন।  ডিভোর্স দেয়া ও সম্ভব নয়। আসলেই এটা অনেক কষ্টের এবং চিন্তার বিষয়। আপনি আর কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছেন না বলেই আত্মহত্যার কথা চিন্তা করেছেন। তবে একটু নিজের কথা ভেবে দেখুন আপনার জীবন অনেক মূল্যবান, আপনাকেও অনেকে ভালোবাসা। আপনার মা-বাবা, পরিবার বা ফ্রেন্ড।  এবং আপনার নিজের গুণাবলীর মাদ্ধমেই আপনি এতো দূর এসেছেন। তাইনা? এখন আপনি যেভাবে সমস্যাটি সমাধান করতে চাচ্ছেন সেভাবে পারছেন না। একটু ভেবে দেখবেন কি আর কি করা যায়।  তাদের সাথে আপনি মিউচুয়াল একটা সমাধানে আসতে পারেন। যেমন- কিস্তির মাদ্ধমে টাকা পরিশোধ করা। অথবা আপনার পরিবারে যদি জেনে থাকে সেক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে সহায়তা নেয়া।  আশা করি আপনি উপকৃত হয়েছেন। মায়া 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও